প্রকাশিত: ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ১২:২৪ (বৃহস্পতিবার)
কুলাউড়ায় সাংবাদিকদের সাথে জেলা পরিষদের সদস্য প্রার্থী তানভীরের মতবিনিময়

মৌলভীবাজার জেলা পরিষদ নির্বাচনে ৩নং কুলাউড়া ওয়ার্ডের সাধারণ সদস্য পদপ্রার্থী সৈয়দ আসফাক হোসেন (তানভীর) অটোরিকশা প্রতীকের সমর্থনে কুলাউড়ায় কর্মরত সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভা করেছেন।


সোমবার রাতে জেলা রিটার্নিং অফিসার কর্তৃক বরাদ্দকৃত অটোরিকশা প্রতীক পেয়ে কুলাউড়া শহরের এক অভিজাত রেস্টুরেন্টে সৈয়দ আসফাক হোসেন (তানভীর) প্রথমেই সহযোদ্ধা সাংবাদিকদের সাথে এ মতবিনিময় সভায় মিলিত হন। এতে সভাপতিত্ব করেন মৌলভীবাজার প্রেসক্লাবের সিনিয়র সদস্য সাংবাদিক নুরুল ইসলাম।


মতবিনিময় সভায় কালের কণ্ঠ প্রতিনিধি মাহফুজ রহমানের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন জেলা সাংবাদিক ফোরামের সাধারণ সম্পাদক এম মছব্বির আলী, কুলাউড়া প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক খালেদ পারভেজ বখস, নয়াদিগন্ত প্রতিনিধি মইনুল হক পবন, সাংবাদিক সমিতির সাবেক সভাপতি মোক্তাদির হোসেন, বর্তমান সভাপতি নাজমুল ইসলাম, প্রথম আলো প্রতিনিধি কল্যাণ প্রসুন চম্পু, সাংবাদিক জসিম চৌধুরী, আব্দুল আহাদ, নাজমুল বারী সুহেল, এ কে এম জাবের, তাহিরুল হক, শাহ আলম শামীম, এইচ ডি রুবেল, এস আর অনি চৌধুরী, সালাউদ্দিন, আশিকুল ইসলাম বাবু, হাসান আল মাহমুদ রাজু, শামসুল আজাদ শামসুদ্দিন প্রমুখ।


বক্তব্যে আগামী ১৭ অক্টোবর দলমত নির্বিশেষে সাংবাদিকদের একজন প্রতিনিধি হিসেবে কুলাউড়া ওয়ার্ডে সাংবাদিক আসফাক তানভীরকে সদস্য পদে বিজয়ী করতে প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন সাংবাদিকরা।


সদস্য প্রার্থী সৈয়দ আসফাক হোসেন (তানভীর) সকলের সহযোগিতা প্রত্যাশ্যা করে সাংবাদিকদের মাধ্যমে ভোটার ও কুলাউড়াবাসীর উদ্দেশ্যে বলেন, অপার সম্ভাবনার জনপদ আমাদের প্রিয় এই কুলাউড়া উপজেলা। এখানকার পাহাড়, নদী, ঝর্ণাধারা, চা বাগান, আদিবাসী গ্রামের আঁকাবাকা মেঠোপথ নানা শ্রেণিপেশার মানুষের বৈচিত্রময় জীবন-প্রণালী গোটা মৌলভীবাজার জেলাবাসীর জীবনে অনন্যতা এনে দিয়েছে। 


আমরা গর্বিত; আমরা উচ্ছ্বসিত প্রিয় মাতৃভূমি কুলাউড়া উপজেলাকে নিয়ে। সমৃদ্ধির মহাসড়কে যখন বাংলাদেশ, যেভাবে সমৃদ্ধির মিছিলে কুলাউড়াকে এগিয়ে নেয়ার কথা, ঠিক তেমনটি হচ্ছে না। না বলা একটা আক্ষেপের মধ্যে আমাদের দিনরাত্রি। আমি একজন গণমাধ্যম ও সমাজকর্মী হিসেবে দিনের পর দিন পৌরশহরসহ কুলাউড়া উপজেলার ১৩টি ইউনিয়নের গ্রামে গ্রামে অবাধে বিচরণ করেছি।


মানুষের দুঃখ-দুর্দশা, সমস্যা-সম্ভাবনা সবকিছু অবলোকন ও অনুধাবন করেছি একান্তভাবে। অন্তরের গভীরে অনুভব করেছি পিছিয়ে পড়া বিশাল জনগোষ্ঠীর উন্নয়ন-অগ্রগতির কথা। সবকিছু মিলিয়ে একজন গণমাধ্যম কর্মী হিসেবে ও আমাদের পারিবারিক শিক্ষা এবং রাজনৈতিক আদর্শ আমাাকে উদ্বুদ্ধ করেছে জেলা পরিষদের এই নির্বাচনে সদস্য পদে অংশগ্রহণ করতে।
ভোটারদের উদ্দেশ্যে তিনি আরও বলেন- সততা, ন্যায়-নিষ্ঠা, যোগ্যতা ও আদর্শের কথার সদয় বিবেচনা করে আমাকে আপনাদের মহামূল্যবান ভোট দিয়ে আপনার-আমার-আমাদের সকলের প্রিয় আবাসস্থল কুলাউড়াবাসীর একজন সেবক হিসেবে নির্বাচিত করে চির কৃতার্থ করবেন। আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, আপনাদের আন্তরিক সহযোগিতা ও সুচিন্তিত মতামত একটি সুন্দর ও আধুনিক কুলাউড়া বিনির্মাণে অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে ইনশাআল্লাহ্‌।


সৈয়দ আসফাক হোসেন (তানভীর) ঐতিহ্যবাহী পৃথিমপাশা গ্রামের তরপী সাহেব বাড়ির বাসিন্দা সদ্য প্রয়াত অবসরপ্রাপ্ত সরকারি শিক্ষক সৈয়দ আবিদ হোসেন মাস্টারের জ্যেষ্ঠপুত্র। তিনি সদপাশা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির সভাপতিসহ দৈনিক সমকাল পত্রিকার কুলাউড়া উপজেলা প্রতিনিধির দায়িত্ব পালন করছেন।

সিলেটভিউ২৪ডটকম/অনি/ইআ-১৪