হবিগঞ্জের মাধবপুরে টাকা নিয়েও বিদেশ না নেওয়ায় এক ব্যাক্তিকে গাছে বেঁধে নির্যাতন করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। পুলিশ গিয়ে উদ্ধার করেছে ওই ব্যক্তিকে। গুরুতর অবস্থায় আহত শিশু মিয়াকে মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

বুধবার রাতে উপজেলার চৌমুহনী ইউনিয়নের শাহজালালপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আহত শিশু মিয়া হাসপাতালে চিকিৎসারত অবস্থায় জানান, বুধবার রাতে শাহজালালপুর গ্রামের মজিদ মিয়ার ছেলে মাসুক মিয়া ও তার ছেলে বাড়িতে গিয়ে তাকে জোরপূর্বক শাহজালালপুর গ্রামে নিয়ে যায়। সেখানে একটি গাছের সঙ্গে বেঁধে রেখে নির্যাতন করে। পরে পুলিশ গিয়ে তাকে উদ্ধার করে।

আহত শিশু মিয়ার স্ত্রী অজুফা খাতুন জানান, বুধবার রাতে তারা বাড়িতে সবাই মিলে বসে কথা বলার সময় কয়েকজন তাদের বাড়িতে গিয়ে তার স্বামীকে জোর পূর্বক ধরে নিয়ে যায়। সেখানে আমার স্বামীকে নির্যাতন করা হয়। পুলিশ গিয়ে আমার স্বামীকে উদ্ধার করে।

মাসুক মিয়া জানান, শিশু মিয়া আমার ছেলেকে বিদেশ পাঠাবে বলে সাড়ে ৩ লাখ টাকা নিয়েছে। এ সংক্রান্ত কাগজ ও চেক আছে। বিদেশ না নেওয়ায় তার বিরুদ্ধে মামলাও করা হয়েছে। নিযার্তনের বিষয়ে জানতে চাইলে মাসুক মিয়া বলেন, তিনি বাড়িতে ছিলেন না। হয়ত তার ছেলে এ ঘটনা করেছে।

চৌমুহনী ইউপি সদস্য (মেম্বার) আব্দুল কাদির জানান, টাকা পয়সার বিষয় নিয়ে তাদের মধ্যে ঝামেলা ছিল। শিশু মিয়াকে ধরে এনে নির্যাতন করা হয়েছে। পরে পুলিশ এসে উদ্ধার করেছে।

কাশিমনগর পুলিশ ফাঁড়ির এসআই দেবাশীষ তালুকদার জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে শিশু মিয়াকে উদ্ধার করা হয়েছে।

সিলেটভিউ২৪ডটকম/ডিজেএস-১৩