সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (শাবি) একের পর এক আত্মহত্যার ঘটনা ঘটছে। করোনা মহামারির মধ্যেই আত্মহত্যা করেছেন চার শিক্ষার্থী। আর গেল প্রায় এক যুগে এ চূড়ান্ত পথ বেছে নিয়েছেন ১১ জন।

এই পরিস্থিতিতে উদ্বিগ্ন বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। শিক্ষার্থীদের মানসিক সমর্থন দিতে, তাদেরকে আত্মহত্যার পথে যাওয়া থেকে ঠেকাতে সম্প্রতি সাইকোলজিস্ট নিয়োগ দিয়েছে তারা।

বিশ্ববিদ্যালয় ও পুলিশের তথ্যা বলছে, শাবির ব্যবসায় প্রশাসন  বিভাগের ছাত্রী ঝর্না রায় ২০০৯ সালের ২ আগস্ট, কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষার্থী সায়মা সুলতানা এনি ২০১০ সালে, পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র সৈকত আল ইমরান ২০১১ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি, শ্রী নিবারণ ২০১২ সালে আত্মহননের পথে পা বাড়ান।

আর্কিটেকচার বিভাগের ছাত্র শাহারিয়ার মজুমদার ২০১৫ সালের ৩ সেপ্টেম্বর, ফরেস্ট্রি অ্যান্ড এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স বিভাগের ছাত্র বিশ্বজিৎ মল্লিক ২০১৬ সালের ৭ মে, সমাজবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী মৃত্তিকা রহমান ২০১৮ সালের ৩ জুলাই, বকুল চন্দ্র ২০১৯ সালের ৩ আগস্ট একই পথ বেছে নেন।

এদিকে, চলতি করোনাকালে শাবির চার মেধাবী শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করেছেন। এর মধ্যে বাংলা বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী তোরাবি বিনতে হক ২০২০ সালের ৫ আগস্ট, একই বিভাগের প্রথম বর্ষের ছাত্রী আছিয়া আক্তার গত বছরের ১ অক্টোবর আত্মহত্যা করেন।

চলতি বছরের ৮ ফেব্রুয়ারি পৃথিবীর মায়া কাটিয়ে আত্মহনন করেন পধার্থবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী প্রত্যয়। সর্বশেষ গেল ৬ মে রসায়ন বিভাগের ছাত্র আলমগীর কবির হাঁটেন দুঃসহ সেই পথে।

জানা গেছে, একের পর এক শিক্ষার্থীর আত্মহত্যার ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন চিন্তিত। পরিস্থিতির অবনতি ঠেকাতে সাইকোলজিস্ট ফজিলাতুন্নেছা শাপলাকে নিযুক্ত করেছে প্রশাসন। তাঁর কাছে শিক্ষার্থীরা নিজেদের যেকোনো সমস্যার কথা অকপটে বলতে পারবেন।

এ প্রসঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রকল্যাণ উপদেশ ও নির্দেশনা পরিচালক অধ্যাপক জহীর উদ্দিন আহমদ বলছিলেন, “যেকোনো সমস্যায় পড়লে শিক্ষার্থীরা যাতে কাউন্সেলিং সেবা নিতে পারে, সে জন্য সাইকোলজিস্ট ফজিলাতুন্নেছা শাপলার তত্ত্বাবধানে চালু হয়েছে ‘সাস্ট মনের কথা’ নামের ফেসবুক পেজ।”

কাউন্সেলিং সাইকোলজিস্ট ফজিলাতুন্নেছা শাপলা বলেন, ‘সেবা দিতে আমরা সবসময় প্রস্তুত।  বিশ্ববিদ্যালয়ের যে কেউ এই প্ল্যাটফর্মে (সাস্ট মনের কথা) আমাদের কাছে মানসিক সমস্যাজনিত প্রশ্ন রাখতে পারেন। আমরা দ্রুত সময়ের মধ্যে সাড়া দেব।’

তিনি বলেন, ‘আত্মহত্যা কোনো সমাধান নয়। সমস্যার সমাধানে এ পথ বেছে নেয়াটাই বরঞ্চ বড় সমস্যা। কোনো সমস্যা থাকলে সহপাঠি, বন্ধু, সর্বোপরি পরিবারের সাথে শেয়ার করতে হবে। সমস্যাকে নিজের ভেতর ঝিঁইয়ে রাখা উচিত নয়।’

সিলেটভিউ২৪ডটকম/আরআই-কে