বাইজান্টাইন সময়ের একটি মদ তৈরির কমপ্লেক্স আবিষ্কার করেছেন ইসরায়েলি প্রত্নতত্ত্ববিদরা। আজ সোমবার এমন একটি ঘোষণা দেন তাঁরা। জানান, দুই মিলিয়ন লিটার (৫২০০০০ গ্যালন) মদ তৈরির সক্ষমতা ছিল কমপ্লেক্সটির। এবং এই মদ রপ্তানি করা হতো ইউরোপের বিভিন্ন দেশ, মিসর ও তুরস্কে।

গত দুই বছর ধরে ইসরায়েলের শহর তেল আবিবের দক্ষিণে ইয়াভনেতে খোঁড়াখুঁড়ির কাজ করছিলেন প্রত্নতত্ত্ববিদরা। অবশেষে তাঁরা জানতে পারেন কিভাবে ১৫০০ বছর আগে সেখানে তৈরি করা হতো সুমিষ্ট সাদা মদ।

খননকাজের অন্যতম পরিচালক জন সেলিগম্যান বলেন, 'এটি ছিল একটি ভালো মানের মদ, হালকা সাদা রঙের। এবং এই মদটি ভূমধ্যসাগর অঞ্চলের বহু দেশে সরবরাহ করা হতো।' তিনি আরো বলেন, মদটি স্থানীয়ভাবে 'গাজা' মদ নামে পরিচিত ছিল। আনন্দ উপভোগ এবং স্বাস্থ্যগত কারণে এটি ছেলে-বুড়ো সবাই গ্রহণ করত। এটি পুষ্টিকর ছিল, নিরাপদও। সে সময় সেখানে পানি ছিল তুলনামূলক দূষিত আর মদটি ছিল যথেষ্ট নিরাপদ।

প্রত্নতত্ত্ববিদরা খুঁজে পান পাঁচটি ওয়াইন প্রেস, আঙুরের সংরক্ষণাগার এবং স্টম্পিং এরিয়া। ছিল ওয়্যারহাউজ। হাজারো মাটির পাত্রের ভাঙা টুকরো এবং সেগুলো বানানোর ছাঁচ।


সিলেটভিউ২৪ডটকম/জিএসি-০৫


সূত্র : দ্য উইক