বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার প্রয়াত ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর স্ত্রী শর্মিলা রহমান সিঁথি ও মেয়ে জাহিয়া রহমান করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়েছেন। একটি সূত্র বিষয়টি নিশ্চিত করলেও বিএনপির পক্ষ থেকে কেউ নিশ্চিত করেননি।

জানা গেছে, শর্মিলা রহমান ও জাহিয়া রহমান বর্তমানে খালেদা জিয়ার গুলশানের বাসা ফিরোজায় অবস্থান করছেন। বৃহস্পতিবার তাদের করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসে।  


সিলেট ভিউ'র খবর নিয়মিত পেতে

দিয়ে যুক্ত থাকুন

গত ২৪ অক্টোবর লন্ডন থেকে দেশে আসেন শর্মিলা রহমান। ১৩ নভেম্বর খালেদা জিয়াকে এভার কেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করার পর প্রায় প্রতিদিনই হাসপাতালে যেতেন তিনি। শাশুড়ির দেখাশুনা করার জন্যই মূলত তিনি ঢাকায় অবস্থান করছেন।

সূত্র জানায়, গুলশানে ৭৯ নম্বর রোডের এক নম্বর বাসা ফিরোজায় অবস্থান করা খালেদা জিয়ার সেবায় নিয়োজিত সব কর্মকর্তা-কর্মচারী ও নিরাপত্তায় নিয়োজিত কর্মীসহ সবার করোনা পরীক্ষা করা হবে। ওই বাসার সবার করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ পাওয়া গেলে শিগগিরই খালেদা জিয়াকেও বাসায় নিয়ে যাওয়া হবে।

জানা গেছে, খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার খুব একটা উন্নতি না হলেও তাকে বাসায় নেওয়ার চিন্তা করছেন চিকিৎসকরা। কারণ দেশে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বাড়ায় তাকে হাসপাতালে রাখাটা ঝুঁকিপূর্ণ মনে করছেন তার চিকিৎসক বোর্ডের সদস্যরা। সেজন্য তাকে বাসায় রেখে চিকিৎসা দেওয়া হতে পারে। মেডিক্যাল বোর্ডের সদস্যরা খুব শিগগিরই বৈঠক করে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানাবেন।

খালেদা জিয়ার চিকিৎসক দলের সদস্য ও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান প্রফেজর ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন বলেন, এ বিষয়ে আমি কিছু বলতে পারছি না।

এদিকে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও তার স্ত্রী করোনায় আক্রান্ত হয়ে গত ১১ জানুয়ারি থেকে উত্তরার বাসায় অবস্থান করছেন। শারীরিকভাবে তারা সুস্থ আছেন বলে জানা গেছে।


সিলেটভিউ২৪ডটকম/আরআই-কে


সূত্র : বাংলানিউজ