দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়নে প্রার্থী হতে চান দুই মামলার সাজাপ্রাপ্ত পলাতক এক আসামি। মো. নুরুল ইসলাম ওরফে নুর মিয়া নামের ওই মনোনয়নপ্রত্যাশী সিলেট-২ (বিশ্বনাথ-ওসমানীনগর) আসন থেকে নির্বাচন করার লক্ষ্যে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন সংগ্রহ করে জমা দিয়েছেন। তিনি যুবলীগের কেন্দ্রীয় সদস্য। পুলিশের খাতায় তিনি পলাতক আসামি।

 


নুরুল ইসলাম সিলেটের ওসমানীনগর উপজেলার কামালপুর গ্রামের রফিক আলীর ছেলে।

 

জানা গেছে, নুরুল ইসলাম ওরফে নুর মিয়া দুটি মামলায় কয়েক বছর আগে আদালত থেকে সাজাপ্রাপ্ত হন। একটি মামলার রায়ে তাকে এক বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড ও দশ হাজার টাকা জরিমানা এবং অপর মামলার রায়ে ছয় মাসের বিনাশ্রম কারাদ- ও তিন লক্ষ টাকা জরিমানা করেন আদালত। এরপর থেকে তিনি পলাতক রয়েছেন। সিলেট-২ আসনে নির্বাচন করার লক্ষ্যে গত সোমবার তিনি আওয়ামী লীগের মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করে জমা দেন। নৌকার মনোনয়ন নিশ্চিতে তিনি কেন্দ্রের বিভিন্ন নেতার কাছেও ধর্ণা দিচ্ছেন বলে সূত্র জানিয়েছে।

 

এদিকে, সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামির মনোনয়নপত্র সংগ্রহ নিয়ে সিলেটে তোলপাড় চলছে। সাজার বিষয়টি গোপন রেখেই নুরুল ইসলাম মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের একাধিক নেতা।

 

নুরুল ইসলাম ওরফে নুর মিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ওসমানীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাছুদুল আমিন। তিনি বলেন, ‘নুরুল ইসলাম ওরফে নুর মিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা রয়েছে। তাকে গ্রেফতারে পুলিশ তৎপর রয়েছে।’

 

মামলা প্রসঙ্গে নুরুল ইসলাম ওরফে নূর মিয়া বলেন, ‘আমার বিরুদ্ধে কোনো গ্রেফতারি পরোয়ানা নেই। গত সপ্তাহে বাদীর সাথে মামলাটি আপস হয়ে গেছে।’


সিলেটভিউ২৪ডটকম/শাদিআচৌ/ডি.আর