ব্যক্তিগত পারফরম্যান্সে দারুণ এক বিশ্বকাপ আসর কাটিয়েছেন ভারতীয় অধিনায়ক রোহিত শর্মা ও মাস্টার ব্যাটার বিরাট কোহলি। সর্বোচ্চ রানসংগ্রাহক কোহলি তো টুর্নামেন্টেরই সেরা প্লেয়ার। রোহিতও ছিলেন সেই তালিকায়, তবে দলকে উড়ন্ত সূচনা এনে দিতে তিনি ইনিংস বড় করার চেয়ে আগ্রাসী ব্যাটিংকেই প্রাধান্য দিয়েছেন। এমন দুর্দান্ত ফর্মে থাকা দুই তারকা ক্রিকেটারকে আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও দেখতে চান পাকিস্তানি কিংবদন্তি ওয়াসিম আকরাম।
 

অবশ্য এই দুই ক্রিকেটারকে অনেক আগে থেকেই ভারতের টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটের দলে দেখা যাচ্ছে না। অনেকের মতে– দলটির সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটের বিবেচনায় নেই রোহিত-কোহলি। সে কারণে দ্রুতই দেশটির ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে নিজের ভবিষ্যৎ চূড়ান্ত করার জন্য বসতে যাচ্ছেন অধিনায়ক রোহিত। এছাড়া ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের দাবি– বিশ্বকাপের আগেই নাকি রোহিত নিজে থেকে জানিয়ে দিয়েছেন টি-টোয়েন্টিতে যাতে তাকে আর বিবেচনা না করা হয়। আর এতে ভারতীয় এই অধিনায়কের কোনো সমস্যা নেই। ভারতীয় নির্বাচকরাও টি-টোয়েন্টিতে তরুণদের সুযোগ দিতে আগ্রহী।
 


বিসিসিআইয়ের একটি সূত্রের বরাতে সংবাদমাধ্যম টাইমস অফ ইন্ডিয়া বলেছিল, ‘ওয়ানডে বিশ্বকাপের আগেই রোহিত জানিয়ে দেন টি-টোয়েন্টিতে তাকে দলে না রাখার জন্য, তিনি বরং ভালো আছেন। নির্বাচকরা গত এক বছর ধরে টি-টোয়েন্টিতে তরুণদের বেশ সুযোগ দিতে দেখা গেছে। পরের বছর জুনে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও তরুণদের খেলানোর স্ট্র্যাটেজি থেকে তারা সরবেন না।’
 

যদিও এ নিয়ে বিসিসিআই এখন পর্যন্ত আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু জানায়নি। তবে এখনই ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটে রোহিত-কোহলির শেষ দেখতে চান না চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দেশ পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটার আকরাম। দেশটির একটি টিভি চ্যানেলে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘ভারতীয় ক্রিকেটের দুই তারকা এই মুহূর্তে দুর্দান্ত ফর্মে রয়েছেন। আর এমন ফর্মে থাকা পরিস্থিতিতে বিরাট-রোহিতের মতো ব্যাটারকে দলের বাইরে রাখা কখনোই উচিৎ হবে না।’
 

ওয়াসিম আকরাম আরও বলেন, ‘টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আর মাত্র ৬ মাস বাকি রয়েছে। আমি হলে নিশ্চিন্তে এই দুজনকে ভারতীয় দলে রাখতাম, তার কারণ একটা দলে অভিজ্ঞতা ও তারুণ্য দুটোরই দরকার। ওরা ভারতীয় ক্রিকেটের প্রচুর অভিজ্ঞতা সম্পন্ন।  বিশ্বকাপের মতো মঞ্চে গোটা তরুণ ব্রিগেড নিয়ে কখনোই নামা উচিৎ নয়, অভিজ্ঞতাও সেখানে দরকার।’

আগামী বছরের জুনে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও যুক্তরাষ্ট্রের মাটিতে বসবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আসর। এই টুর্নামেন্টের জন্য এখন থেকে প্রস্তুতিতে নেমেছে অংশগ্রহণকারী দলগুলো। তারই অংশ হিসেবে ভারত একটি তরুণনির্ভর দল গড়তে চায়। কিন্তু সাবেক ক্রিকেটাররা রোহিত-কোহলিদেরও সেখাতে দেখতে চান। বিশ্বকাপের ১১ ম্যাচে প্রায় ৯৬ গড়ে ৭৬৫ রান করেছেন সর্বোচ্চ রানসংগ্রাহক কোহলি। এছাড়া রোহিত ৫৪ গড়ে ৫৯৭ রান করে সেই তালিকার দুইয়ে ছিলেন।


 

সিলেটভিউ২৪ডটকম/ডেস্ক/এসডি-৬০৬


সূত্র : ঢাকাপোষ্ট