“মামলা নিষ্পত্তির দীর্ঘসূত্রিতা ন্যায়বিচারের পথে অন্তরায়। আমাদের দেশের আদালতগুলোতে বছরের পর বছর মামলাগুলো অনিষ্পত্তি অবস্থায় থেকে যাচ্ছে। এতে সাধারণ মানুষ কেবল হয়র্রানির শিকারই হচ্ছেন না; তারা ন্যায়বিচার থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। আমাদের মনে রাখতে হবে রাষ্ট্রের মালিক হচ্ছেন জনগণ। আমাদের দেশের অনেক আইনপ্রণেতারা আইনের অনেক তাত্ত্বিক দিক সম্পর্কে বিস্তারিত না জানায় আইনের খসড়া তৈরীতে আমলাতন্ত্র বিশেষ ভূমিকা পালন করে। মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটির আইন ও বিচার বিভাগ সিলেটসহ দেশের আইন শিক্ষার অগ্রগতিতে বিশেষ অবদান রেখে চলছে। অতি অল্পসময়ে মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটি দেশের উচ্চ শিক্ষায় ব্যতিক্রমী ধারা সংযুক্ত করেছে। আমি এজন্য এ ইউনিভার্সিটির প্রতিষ্ঠাতা ড. তৌফিক রহমান চৌধুরীকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। তরুণ আইনজীবী ও দেশের ভবিষ্যত আইনজ্ঞদের ব্যতিক্রমী অনুষ্ঠানে উপস্থিত হতে পেরে ভালো লাগছে। আইনের শিক্ষার্থীদের সম্ভাবনাময় ক্যারিয়ার রয়েছে। বিশ্বের প্রতিথযশা কূটনৈতিক ও রাষ্ট্রনায়করা আইনের শিক্ষার্থী ছিলেন।”
 

শুক্রবার (২৪ নভেম্বর) রাতে সিলেটের একটি অভিজাত রেস্তোরার বলরুমে দেশের অন্যতম শীর্ষ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটির আইন ও বিচার বিভাগের ল’ স্টুডেন্টস ফোরাম এবং ল’ ক্লিনিকের যৌথ উদ্যোগে এমইউ ল’ নাইট অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও সিলেট-১ আসনের সংসদ সদস্য ড. এ কে আব্দুল মোমেন এসব কথা বলেন।
 


মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটির ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মাদ জহিরুল হকেরসভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে যুক্তরাজ্য থেকে ভার্চুয়ালি সংযুক্ত হয়ে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন- মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটির প্রতিষ্ঠাতা ও বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান ড. তৌফিক রহমান চৌধুরী।
 

আইন ও বিচার বিভাগের প্রভাষক সৈয়দা নাজমুর সিহা মুনার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন আইন অনুষদের ভারপ্রাপ্ত ডিন শেখ আশরাফুর রহমান, আইন ও বিচার বিভাগের প্রধান গাজী সাইফুল হাসান, সহকারী প্রক্টর এডভোকেট মো. আব্বাস উদ্দিন, এমইউ ল’ অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক ও সভাপতি যথাক্রমে শাহাদাত আলী শাকী ও মোহাইমিন চৌধুরী বাপ্পী, ল’ স্টুডেন্টস ফোরামের সহ-সভাপতি সামছুল ইসলাম জাকারিয়া প্রমুখ। অনুষ্ঠানে আইন ও বিচার বিভাগের শিক্ষার্থীদের সম্পাদনায় ‘আইনদর্পণ’ শীর্ষক ম্যাগাজিনের মোড়ক উন্মোচন করেন প্রধান অতিথি পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন ও সভাপতি ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মাদ জহিরুল হকসহ অন্যান্য অতিথিবৃন্দ।

অনুষ্ঠানের শুরুতে পররাষ্ট্র মন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান ভাইস চ্যান্সেলর। তিনি প্রধান অতিথিকে সম্মাননা স্মারকও তুলে দেন। পরে প্রধান অতিথি, সভাপতিসহ অন্যান্য অতিথিবৃন্দ কেক কাটেন।
 

এতে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটির স্কুল অব বিজনেস এন্ড ইকোনোমিক্স এর ডিন ও প্রক্টর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জামাল উদ্দিন, পরিচালক (অর্থ) ইনামুল হক, ছাত্রকল্যাণ উপদেষ্টা ড. এম.জেড. আশরাফুল, ডেপুটি রেজিস্ট্রার মিহিরকান্তি চৌধুরীসহ আইন ও বিচার বিভাগের শিক্ষকবৃন্দ এবং এলএল.বি. (অনার্স) ও এলএল.এম. প্রোগ্রামের প্রাক্তন ও বর্তমান কয়েক শ শিক্ষার্থী। মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও নৈশভোজের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘটে।

উল্লেখ্য, বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের মধ্যে সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক সৃষ্টিতে আইন ও বিচার বিভাগ প্রতি বছর এমইউ ল’ নাইট-এর আয়োজন করে থাকে। এই অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বর্তমান শিক্ষার্থীরা আইন ও বিচার বিভাগ থেকে ডিগ্রি অর্জন শেষে পেশাগত জীবনে সফলতার স্বাক্ষর রেখে চলেছে তাদের সাথে নিবিড়ভাবে পরিচয়ের সুযোগ ঘটে।


 

সিলেটভিউ২৪ডটকম/আরআই-কে/এসডি-৬২২