কুয়েতের সাবেক প্রতিরক্ষা ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে ৭ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। কারাদণ্ডপ্রাপ্ত সাবেক ওই কুয়েতি মন্ত্রীর নাম শেখ খালিদ আল-জাররাহ আল-সাবাহ। সামরিক তহবিল আত্মসাৎ ও অপব্যবহারের দায়ে রোববার (২৬ নভেম্বর) তাকে এই কারাদণ্ড দেওয়া হয়।
 

এছাড়া দেশটির সাবেক এক প্রধানমন্ত্রীকে তার অব্যবস্থাপিত তহবিল ফেরত দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। রোববার এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স।


প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কুয়েতের সর্বোচ্চ আদালত রোববার দেশটির সাবেক প্রতিরক্ষা ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ খালিদ আল-জাররাহ আল-সাবাহকে সামরিক তহবিল অপব্যবহারের দায়ে সাত বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন।
 

এছাড়া কুয়েতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী শেখ জাবের আল-মুবারক আল-সাবাহও একই ধরনের অভিযোগের মুখোমুখি হয়েছেন। রোববার আদালত তাকে তার অব্যবস্থাপিত তহবিল ফেরত দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।
 

যদিও উভয়েই তাদের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

রয়টার্স বলছে, ২০১১ সাল থেকে প্রধানমন্ত্রীর পদে থাকা শেখ জাবের ২০১৯ সালে পদত্যাগ করেছিলেন। মূলত কুয়েতের আইনপ্রণেতারা সেই বছর শেখ খালিদের বিরুদ্ধে অনাস্থা ভোট উত্থাপন করতে চাওয়ার পর তিনি পদত্যাগ করেন। শেখ খালিদ সেই সময়ে কুয়েতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পদে ছিলেন।
 

তৎকালীন প্রতিরক্ষামন্ত্রী শেখ নাসের সাবাহ আল-আহমেদ সরকারের পদত্যাগের দুই দিন পরে একটি বিবৃতি দিয়েছিলেন। সেখানে তিনি বলেছিলেন, তার দায়িত্ব গ্রহণের আগে সামরিক তহবিলের প্রায় ২৪০ মিলিয়ন দিনার (৭৭৮.৬১ মিলিয়ন মার্কিন ডলার) অব্যবস্থাপনা এড়াতে মন্ত্রিসভা পদত্যাগ করেছে।
 

পরে শেখ জাবের এবং শেখ খালিদ ২০২২ সালের মার্চ মাসে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ থেকে খালাস পান। কিন্তু কুয়েত প্রসিকিউশনের আপিলের ভিত্তিতে পরে তাদের বিরুদ্ধে মামলাটি পুনরুজ্জীবিত করা হয়।


 


সিলেটভিউ২৪ডটকম/ডেস্ক/এসডি-৬৩৬


সূত্র : ঢাকাপোষ্ট