চিত্রনায়িকা প্রার্থনা ফারদিন দীঘির বিকাশ অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়েছে। যে কারণে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের কার্যালয়ে গিয়েছেন চলচ্চিত্র অভিনেত্রী ও মডেল প্রার্থনা ফারদিন দীঘি। তার বিকাশ অ্যাকাউন্ট হ্যাক করে টাকা নেওয়ার বিষয়ে তিনি অভিযোগ জানান ডিবিতে।

 


ডিবি সূত্রে জানা গেছে, অভিনেত্রী দিঘীর বিকাশ অ্যাকাউন্ট হ্যাক করে টাকা হাতিয়ে নিয়েছে প্রতারকরা। তার এমন অভিযোগের ভিত্তিতে তিন আসামিকে গ্রেপ্তার করে ডিবি।

ঘটনার বর্ণনা দিয়ে দীঘি বলেন, গত পর্শ্বু ঘটেছে এটি। আমি একটি কাজের জন্য বাইরে বের হয়েছিলাম। বাসায় ড্রাইভার না থাকায় সিএনজি করে যাচ্ছিলাম। পথিমধ্যে আমার কাছে ফোন আসে। তখন আমাকে নানাভাবে ম্যানুপুলেট করা বোঝানো হয়, আমার অ্যাকাউন্ট বন্ধ হয়ে যাবে। তো আমার অ্যাকাউন্টে যেহেতু টাকা রয়েছে, তাই আমি চাইনি অ্যাকাউন্ট বন্ধ হোক।

দীঘি বলেন, আমি সিএনজিতে থাকায় সেভাবে কিছু বুঝতেও পারছিলাম না। তাই অ্যাকাউন্ট যাতে বন্ধ না হয়। তাদের (প্রতারক) আমার পরিচয় দেই। তখন তারা সরি বলে জানায়, অ্যাকাউন্ট সচল রাখতে আমার হেল্প লাগবে তাদের। এই সময়ের মধ্যে তারা আমার ফোনে ওটিপি পাঠায়। আমিও সেটি দিয়ে দেই তাদের। আমি শুধু মনে রেখেছিলাম যে, আমার পিন কোড না দিলেই হয়।

তিনি আরও বলেন, কিছুক্ষণ পর আমি ঘটনাস্থলে পৌঁছাই। তারপর হঠাৎ অ্যাকাউন্ট চেক করি। তো দেখি আমার অ্যাকাউন্টে কোনো টাকা নেই। অ্যাকাউন্টে দেড় লাখ টাকার বেশি ছিল। এক লাখ ৬০ হাজার টাকা। এরপর আমি সবার সঙ্গে বুঝতে থাকি বিষয়টি নিয়ে। এরপর সবার পরামর্শে আমি শেরে বাংলানগর থানায় গিয়ে জিডি করি।

তিনি জানান, শুরু থেকে ডিবিপ্রধান হারুনুর রশিদ ভাইয়ার কথা মনে পড়ছিল। মনে হচ্ছিল, তিনি হয়তো কার্যকর কোনো ব্যবস্থা নিতে পারবেন। এ কারণে এখানে আসা।

দীঘি বলেন, ডিবিপ্রধান আমাকে পরদিন দেখা হলে বলেন, আমার আগের রাতে পাঠানো স্ক্রিনশর্ট দেখেই কাজ শুরু করে দিয়েছেন তারা। আর পরদিন রাতে আমাকে জানান, আমার টাকা রিটার্ন করতে পেরেছেন তারা। আগামীকাল আমাকে টাকাটা হ্যান্ডওভার করতে চান। আমি তাদের প্রতি কৃতজ্ঞ।

 

সিলেটভিউ২৪ডটকম / নাজাত