সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞানও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এক যুবকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। 


 


বুধবার (১৫ মে) দুপুর আড়াইটার দিকে এ লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর অধ্যাপক ড. কামরুজ্জামান চৌধুরী ।  

 


নিহত যুবকের নাম আলমগীর মিয়া (৩৫)। তিনি নগরীর বিমানবন্দর থানার লাখাউরা বড় বাড়ীর  মৃত বারিক মিয়ার ছেলে। তিনি একজন টিকাদেরর অধীনে শাবিতে উন্নয়ন কাজে নিযুক্ত ছিলেন৷ 


 

প্রক্টর বলেন, নিহত শ্রমিক ফুডকোর্টের পাশে লেকের কাজ করছিল। সেখানে বিদ্যুতের লাইন রয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, বৈদ্যুতিক শকে তার মৃত্যু হতে পারে। 

 

লাশ ময়নাতদন্তের জন্য সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজে  পাঠানো হয়েছে। 


 

ফুডকোর্টের একটি দোকানের একজন কর্মচারী জানান, বেলা সাড়ে ১২টার দিকে তার দোকান থেকে খাবার পানি নিয়েছিলেন আলমগীর। লেকে সে কাজ করছিল। হঠাৎ বেলা একটার দিকে লেকে ওই শ্রমিকের লাশ ভাসতে দেখেন তিনি। 


 


বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ লেক পরিদর্শন করেছেন। এসময় তিনি বলেন, নিহতের শ্রমিকের পরিবারকে সহযোগিতা করা হবে। এছাড়া  এ ঘটনার তদন্তের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের পুর ও পরিবেশ কৌশল বিভাগের অধ্যাপক ড. মুশতাক আহমেদকে প্রধান করে ৫ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। 


 

শ্রমিকের মৃত্যুতে তদারকির কোনো অভাব ছিল না কিনা-এমন প্রশ্নে উপাচার্য বলেন, তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনের ভিত্তিতে আমরা ব্যবস্থা নিব। 

 


 

সিলেটভিউ২৪ডটকম / নোমান / ডি.আর