আইপিএলে একের পর এক বিধ্বংসী ইনিংস খেলে নজর কেড়েছিলেন অস্ট্রেলিয়ার তরুণ ওপেনার জ্যাক ফ্রেজার-ম্যাকগার্ক। অস্ট্রেলিয়ার বিশ্বকাপ জেতানো দুই সাবেক অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্ক এবং অ্যারন ফিঞ্চ তাকে দেখতে চেয়েছিলেন বিশ্বকাপ দলে। যদিও ১৫ সদস্যের বিশ্বকাপ স্কোয়াডে জায়গা হয়নি তরুণ এই ওপেনারের।
 

আইপিএলে দিল্লি ক্যাপিটালসের হয়ে দুর্দান্ত ফর্মে থাকা এই ব্যাটার বিশ্বকাপ দলে সুযোগ না পাওয়ায় ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা হচ্ছিল। এর মধ্যেই জানা যাচ্ছে, রিজার্ভ হিসেবে বিশ্বকাপে যাচ্ছেন ম্যাকগার্ক।


অস্ট্রেলিয়ার ৫০ ওভারের ঘরোয়া টুর্নামেন্ট মার্শ কাপে সবচেয়ে দ্রুততম (২৯ বল) সেঞ্চুরির কীর্তি গড়েছিলেন ম্যাকগার্ক। সেটি এখন অতীত, এরপর অজিদের হয়ে আন্তর্জাতিক ওয়ানডেতেও তিনি দুই ম্যাচ খেলে ফেলেছেন। বিগ ব্যাশের পর সাম্প্রতিক সময়ে আইপিএলে বিধ্বংসী ব্যাটিংয়ের কারণে আবারও আলোচনায় উঠে এসেছিলেন।

মাত্র ২২ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার যে গতিতে এবার রান তুলেছিলেন, তা তাক লাগিয়ে দিয়েছিল ক্রিকেট বিশ্বকে। চলতি আইপিএলে সব মিলিয়ে ৯টি ম্যাচ খেলেছেন। রান করেছেন ৩৩০। স্ট্রাইক রেট ২৩৪। অর্ধশতরানের ইনিংস আছে ৪টি। ওপেনিংয়ে দিল্লিকে নির্ভরতা দিয়েছেন এই তরুণ ক্রিকেটার।
 

আগামী ২ জুন থেকে অনুষ্ঠিতব্য টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে ওয়েস্ট ইন্ডিজে প্রস্তুতি ক্যাম্প করবে অস্ট্রেলিয়া। সেখানে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচও খেলবে মিচেল মার্শরা। তার আগেই ব্যাগি গ্রিন্সরা ম্যাথিউ শর্টের সঙ্গে দ্বিতীয় রিজার্ভ ক্রিকেটার হিসেবে ম্যাকগার্ককে দলের সঙ্গে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। ইতোমধ্যে দিল্লির আইপিএল অভিযান শেষ হওয়ায় ম্যাকগার্ক দেশে ফিরে গেছেন। উল্লেখ্য, আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে এখনো অভিষেক হয়নি তরুণ এই ওপেনারের।

এক সংবাদ সংস্থা জানিয়েছে, ‘অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট বোর্ডের নির্বাচক জর্জ বেলি আগে ঘোষণা করেছিলেন, তারা বিশ্বকাপে একজন রিজার্ভ ক্রিকেটার নিয়ে যাবেন। যদিও তিনি এখন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন শর্টের পাশাপাশি জ্যাক ফ্রেজার ম্যাকগার্ককেও সাম্প্রতিক পারফরম্যান্সের কথা মাথায় রেখে রিজার্ভে রাখা হবে’। ২৮ এবং ৩০ তারিখ, যথাক্রমে নামিবিয়া এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে অজিরা। এদিকে আইপিএল শেষ হলে দলের সঙ্গে যোগ দেবেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, প্যাট কামিন্স, ট্রাভিস হেড, মিচেল স্টার্করা।
 

আগামী ৫ জুন বার্বাডোজে ওমানের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে টি-২০ বিশ্বকাপ অভিযান শুরু করবে অস্ট্রেলিয়া। এরপর ৮ তারিখ তাদের ম্যাচ চিরপ্রতিদ্বন্দী ইংল্যান্ডের বিপক্ষে। এখনো চোট সারিয়ে পুরোপুরি ফিট নয় অজিদের টি২০ বিশ্বকাপের অধিনায়ক মিচেল মার্শ। যদিও ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া আশাবাদী ওয়েস্ট ইন্ডিজে ক্যাম্প চলাকালেই ফিট হয়ে যাবেন তিনি।


 


সিলেটভিউ২৪ডটকম/ডেস্ক/এসডি-৩০৭৫


সূত্র : ঢাকাপোষ্ট