ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনার হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় আটক ঝিনাইদহ জেলা আওয়ামী লীগ নেতা কাজী কামাল আহমেদকে বিভিন্ন বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। তবে তাকে এখনো গ্রেফতার দেখানো হয়নি।
 

শনিবার (৮ জুন) দুপুরে রাজধানীর মিন্টো রোডে নিজ কার্যালয়ে ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগের (ডিবি) অতিরিক্ত কমিশনার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ এই কথা জানান।


হারুন বলেন, তাকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। গুরুত্বপূর্ণ অনেক বিষয়ে জানতে চাওয়া হচ্ছে। তবে এখনো তাকে আনুষ্ঠানিকভাবে গ্রেফতার দেখানো হয়নি। জিজ্ঞাসাবাদে তার কোনো ধরনের সম্পৃক্ততা পাওয়া গেলে তাকে গ্রেফতার দেখানো হবে।
 

মূলহোতা শাহীনকে ফেরানোর বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, শাহীন নেপাল থেকে দুবাই হয়ে আমেরিকা চলে গেছেন। ভারতে যখন ছিলাম সেখানকার পুলিশের সঙ্গে কথা হয়েছে, বৈঠক হয়েছে। যেহেতু ভারতে হত্যা হয়েছে সেহেতু শাহীন তাদের কাছে মোস্ট ওয়ান্টেড। আমরাও কাজ করছি, তারাও কাজ করছে। আমরা পুলিশ সদর দফতরের এনসিবিতে কাগজপত্র জমা দিয়েছি। তারা হয়ত ইন্টারপোলের কাছে এসব বিষয় জানিয়েছে। বাংলাদেশের অ্যাম্বাসির সঙ্গে আমরা কথা বলছি। তবে এইটুকু বলতে পারি, আনার হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে যারা যেখানে যেভাবে জড়িত তাদের আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে।
 

হারুন বলেন, সিয়ামকে ভারত নিয়ে গেছে। আনারকে হত্যা করে পৈশাচিক কায়দায় গুম করার বিষয়টি জানেন সিয়াম ও জিয়াদ। এ দুজনই এখন তাদের কাছে রয়েছে। তাদের সঙ্গে নিয়ে অভিযান পরিচালনা করলে ভালো ফল পাবে। প্রয়োজনে আমরাও সিয়ামকে জিজ্ঞাসাবাদ করব। সিয়াম নেপালে আছেন- সেই তথ্য পাওয়ার পরে আমরা এনসিবিকে চিঠি লিখেছি। এনসিবি দ্রুত কাঠমুন্ডু এনসিবিকে তথ্য পাঠিয়ে বলেছে, সিয়ামকে দ্রুত গ্রেফতার করার জন্য।


সিলেটভিউ২৪ডটকম/ডেস্ক/এসডি-৫১৭৮


সূত্র : ঢাকামেইল