আগামী ১৭ জুন উদযাপিত হবে পবিত্র ঈদুল আযহা বা কুরবানির ঈদ। এ উপলক্ষ্যে ১৩ জুন থেকে সিলেট মহানগরের ৮টি স্থানে বসবে অস্থায়ী পশুর হাট। 


নির্ধারিত স্থান ছাড়া অবৈধ পশুর হাট বসালেই আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছে সিলেট সিটি কর্পোরেশন (সিসিক) কর্তৃপক্ষ।


 
সোমবার (১০ জুন) দুপুর ১টায় সিসিক মেয়র মো. আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী পরিষদের একটি জরুরি বিশেষ সভায় বলেন- পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে ১৩ জুন থেকে ৫ দিন সিলেট মহানগরে ৮টি কুরবানির পশুর হাট বসবে। এগুলো ছাড়া অবৈধ হাট বসতে দেয়া হবে না। কেউ বসালে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 
মেয়র আরও বলেন, কুরবানির পর দ্রুত বর্জ্য অপসারণ করবে সিসিক। হাট চলাকালে শহরকে পরিচ্ছন্ন রাখতে সার্বক্ষণিক পরিষ্কার করা হবে। 

ঈদের দিন নির্ধারিত স্থানে বর্জ্য ফেলার জন্য নাগরিকদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি। এ লক্ষ্যে জনসাধারণের সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য সিসিকের পক্ষ থেকে প্রচারণামূলক কর্মসূচির সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

 
সিসিক সূত্র জানায়, ১৩ জুন থেকে ৫ দিন মহানগরের টুকেরবাজার (তেমুখী পয়েন্ট সংলগ্ন খালি জায়গা), মাছিমপুর কয়েদির মাঠের খালি জায়গা, মেজরটিলা বাজার-সংলগ্ন খালি জায়গা, শাহপরাণ পয়েন্ট সংলগ্ন খালি জায়গা, টিলাগড় পয়েন্ট সংলগ্ন খালি জায়গা, শাহী ঈদগাহস্থ খেলার মাঠের পেছনের অংশ, সিটি কর্পোরেশনের মালিকানাধীন এস ফল্ট মাঠ ও দক্ষিণ সুরমার মোগলাবাজার থানাধীন ট্রাক টার্মিনালে কুরবানির অস্থায়ী পশুর হাট বসবে। 


এছাড়া মহানগরের কাজিরবাজারে প্রতি বছরের ন্যায় বসবে স্থায়ী হাট।

 


সিলেটভিউ২৪ডটকম / ডি.আর/এনএফ