ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের আগে শেষ প্রস্তুতিপর্বে প্রথমবার মাঠে নেমেই দুর্দান্ত দুটি গোল উপহার দিয়েছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। মঙ্গলবার (১১ জুন) রাতে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচে জোড়া গোল করে রেকর্ডবুকে নাম লেখান এই পর্তুগিজ তারকা। দলের সেরা তারকার উজ্জ্বল দিনে দুর্দান্ত এক জয় তুলে নিয়েছে পর্তুগাল।
 

ইউরোর আগে শেষ প্রস্তুতিপর্ব সেরে নিচ্ছে অংশগ্রহণকারী দলগুলো। সেই প্রস্তুতির অংশ হিসেবে মঙ্গলবার রাতে রিপাবলিক অব আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে মাঠে নামে পর্তুগাল। ম্যাচে আইরিশদের ৩-০ গোলে উড়িয়ে জয় তুলে নেয় পর্তুগাল। দলের হয়ে দুটি গোল করেন রোনালদো।


ম্যাচের শুরু থেকেই দাপুটে ফুটবল খেলেপর্তুগাল। গোলের জন্যও অপেক্ষা দীর্ঘ হয়নি। ১৮ মিনিটে ডান দিক থেকে ব্রুনো ফার্নান্দেজের পাস বক্সে পেয়ে জায়গা বানিয়ে কোনাকুনি শট নেন ফেলিক্স, সবাইকে ফাঁকি দিয়ে দূরের পোস্ট দিয়ে জালে জড়ায় বল।

প্রথমার্ধে গোলের সুযোগ পেয়েছিলেন রোনালদোও। তবে অনেক দূর থেকে তার নেওয়া ফ্রি কিকে বল রক্ষণ দেয়ালে একজনের মাথায় লেগে দিক পাল্টে লক্ষ্যেই ছিল, কিন্তু পোস্টে লেগে ফিরে আসে। ১-০ গোলে শেষ হয় প্রথমার্ধের খেলা।
 

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই ব্যবধান দ্বিগুণ করেন রোনালদো। মাঝমাঠ থেকে রুবেন নেভেসের উঁচু করে বাড়ানো বল ডি-বক্সে দারুণ এক ছোঁয়ায় নিয়ন্ত্রণে নিয়ে একজনকে কাটিয়ে কোনাকুনি শটে বল জালে পাঠান তিনি।

 প্রথম গোলের ১০ মিনিট পর অর্থাৎ ম্যাচের ৬০ মিনিটে আরেকটি দারুণ গোলে স্কোরলাইন ৩-০ করেন রোনালদো। বাঁ দিক থেকে দিয়োগো জটার পাস বক্সে পেয়ে প্রথম ছোঁয়ায় বাঁ পায়ের শটে গোলটি করেন পাঁচবারের বর্ষসেরা ফুটবলার।
 

ম্যাচের বাকিটা সময়ও আক্রমণের ধারা বজায় রাখে পর্তুগাল। তবে শেষ পর্যন্ত আর কোনো গোলের দেখা না পেলে ৩-০ ব্যবধানে জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে পর্তুগাল।

ম্যাচে দুই গোল করে আন্তর্জাতিক ফুটবলের ইতিহাসে প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে জাতীয় দলের হয়ে টানা ২১ পঞ্জিকাবর্ষে গোলের কীর্তি গড়েছেন রোনালদো। পর্তুগাল মূল দলের হয়ে তার অভিষেক ২০০৩ সালে। পরের বছর পান প্রথম গোলের দেখা। সেই থেকে প্রতি বছর গোল করেছেন পাঁচবারের বর্ষসেরা এই ফুটবলার।

 


সিলেটভিউ২৪ডটকম/ডেস্ক/এসডি-৫২৪৯


সূত্র : ঢাকামেইল