১৪ ট্রাকের পর এবার সিলেটে ১১ ট্রাক ভারতীয় চোরাই চিনি জব্দ করা হয়েছে। তবে এবার অভিযান চালিয়েছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)।

 



শনিবার (১৫ জুন) সকালে জেলার জৈন্তাপুর উপজেলার সীমান্তবর্তী এলাকা ঘিলাতৈল থেকে ১১ ট্রাক চিনি জব্দ করেছে বিজিবি। তবে এসময় কাউকে আটক করা যায়নি। 

 


বিষয়টি সিলেটভিউ-কে নিশ্চিত করেছেন জৈন্তাপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. আল আমিন।    

 

সূত্র জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে শনিবার সকাল ১০টায় ঘিলাতৈল গ্রামের রাস্তা থেকে ১১টি ট্রাক ভর্তি ভারতীয় চিনির চালান জব্দ করে বিজিবি ১৯ ব্যাটালিয়নের অধীনস্থ রাজবাড়ি ক্যাম্পের জওয়ানরা। এসময় বিজিবির উপস্থিত টের পেয়ে ট্রাক রেখে চালক ও চোরাকারবারিরা পালিয়ে যায়। ১১টি ট্রাকে ৫৬ হাজার কেজি ভারতীয় চিনি ছিলো। যার আনুমানিক বাজারমূল্য ৬৫ লাখ ৫০ হাজার টাকা।

 

জব্দকৃত মালামাল কাস্টমস বিভাগে জমা দেওয়ার কার্যক্রম চালাচ্ছে বিজিবি।

 


এর আগে ৬ জুন সিলেটের জালালাবাদ থানাধীন ২নং হাটখোলা ইউনিয়নের উমাইরগাঁওয়ের ভাদেশ্বর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনের সড়ক থেকে পুলিশ ১৪টি ট্রাক ভর্তি ২ হাজার ১১৪ বস্তা ভারতীয় চিনি উদ্ধার করে। যার মূল্য ছিলো দেড় কোটি টাকারও বেশি। এটাই ছিলো সিলেটের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় চোরাই চিনির চালান।

 

 

অভিযানকালে একটি প্রাইভেটকার ও একটি মোটরসাইকেল জব্দ করে পুলিশ। 

 

 

এ ঘটনায় জালালাবাদ থানায় অজ্ঞাত ব্যক্তিদের নামে মামলা দায়ের করা হয়। ঘটনার ৬ দিন পর ১২ জুন সিলেটের এয়ারপোর্ট থানাধীন রংগীটিলা এলাকা থেকে মো. মনসুর আলী (৩৮) নামে একজনকে গ্রেফতার করা হয়। পুলিশ বলছে- তিনি এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত। গ্রেফতার পরে পুলিশের কাছে প্রাথমিক স্বীকরোক্তির পর আদালতেও স্বীকারোক্তমূলক জবানবন্দী দিয়েছেন মনসুর।

 

 


পুলিশ আরও বলছে- বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য জানা গেছে গ্রেফতারকৃত আসামির কাছ থেকে। তার দেওয়া তথ্যসমূহ যাচাই-বাছাইয়ের মাধ্যমে বাকি আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। 

 

 


 

সিলেটভিউ২৪ডটকম / ডালিম