দীর্ঘদিন ধরে সিলেট-লন্ডন রুটে অস্বাভাবিক হারের বিমান ভাড়া কমানো, টিকেট প্রাপ্তি সহজ করা ও এয়ারপোর্টে যাত্রী হয়রানি বন্ধের জোর দাবি জানাচ্ছে বিভিন্ন মহল এবং সামাজিক সংগঠন। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ বা দপ্তরে বার বার ধর্ণা দিয়েও হচ্ছে না সমস্যাগুলোর সমাধান। 


এবার সিলেট-লন্ডন রুটে বিমানের ফ্লাইটের অতিরিক্ত ভাড়া কমাতে দাবি জানিয়েছেন সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী। তাঁর এই দাবির প্রেক্ষিতে এ রুটে ফ্লাইটের ভাড়া কমানোর আশ্বাস দিয়েছেন বাংলাদেশ বিমানের চেয়ারম্যান- অবসরপ্রাপ্ত সিনিয়র সচিব মোস্তাফা কামাল উদ্দিন।


 

গত বুধবার (১২ জুন) ঢাকায় ব্রিটিশ হাইকমিশনের এক অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ বিমানের চেয়ারম্যানের কাছে বিমানের লন্ডন-সিলেট ও লন্ডন-মানচেস্টার সরাসরি ফ্লাইটের ভাড়া কমানোর দাবি জানান সিসিক মেয়র।


মেয়রের এ দাবির প্রেক্ষিতে বিমান চেয়ারম্যান জানান, ঢাকা থেকে হিথ্রো বা মানচেস্টারে যেতে যে ভাড়া গুনতে হয়, সিলেট থেকে যুক্তরাজ্যে সরাসরি যেতে তার চেয়ে বেশি ভাড়া দিতে হচ্ছে। বিষয়টি আমি জানতে পেরেছি। এ বিষয়ে আমি খোঁজ নিয়েছি। ঢাকা ও সিলেটের ভাড়ার ক্ষেত্রে এ বৈষম্য দূর করতে আমি শিগগিরই পদক্ষেপ নেব।


গত ধবার ছিল ব্রিটেনের রাজা ৩য় চার্লসের জন্মদিবস। এ উপলক্ষে রাজধানীর একটি অভিজাত হোটেলে আয়োজিত জন্মদিনের অনুষ্ঠানে অভ্যাগতদের মধ্যে ছিলেন সিলেটের মেয়র আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী। সেখানে আমন্ত্রিত হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ বিমানের চেয়ারম্যান মোস্তাফা কামাল উদ্দিন।


অনানুষ্ঠানিক আলাপকালে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী বিমানের ভাড়ার বৈষম্যের বিষয়টি নজরে আনেন বিমান চেয়ারম্যানের।


মেয়র আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী বলেন, সম্প্রতি আমি লন্ডন সফরকালে সেখানকার কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ আমাকে জানিয়েছেন যে- সিলেট থেকে লন্ডন বা মানচেস্টারে যেতে ঢাকার চেয়ে প্রায় ১শ' ডলার ভাড়া বেশি দিতে হচ্ছে, যেটি বৈষম্যমূলক। কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ এ বিষয়ে আমাকে বিমানমন্ত্রী, বিমানের চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালকের সাথে কথা বলে বিষয়টি সমন্বয়ের দাবি জানিয়েছেন।


মেয়র আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী বিমান চেয়ারম্যানকে উদ্দেশ্য করে বলেন, বর্তমানে সিলেট-লন্ডন ও সিলেট-মানচেস্টার রুটে বাংলাদেশ বিমানের একাধিক ফ্লাইট পরিচালিত হচ্ছে। ভ্রমণ সময় কম লাগায় ও সরাসরি সিলেট যাওয়ার সুযোগ থাকায় ব্রিটেনে বসবাসরত বাংলাদেশিদের মাঝে এ ফ্লাইট খুবই জনপ্রিয় হয়েছে। কিন্তু লন্ডন বা মানচেস্টার থেকে সরাসরি সিলেট যেতে বা আসতে হলে যাত্রীদেরকে ঢাকার তুলনায় প্রায় ১শ' ডলার বেশি ভাড়া গুনতে হচ্ছে, যা অন্যায্য ও বৈষম্যমূলক।


মেয়র আনোয়ারুজ্জামান অবিলম্বে এই ভাড়ার বৈষম্য দূর করে ঢাকা ও সিলেটের ভাড়ার সমতা আনার জন্য বিমান চেয়ারম্যানের প্রতি দাবি জানান।  


এসময় বিমান বাংলাদেশের চেয়ারম্যান মোস্তাফা কামাল উদ্দিন বলেন, বিষয়টি আমি জানতে পেরেছি। অবিলম্বে এ বিষয়ে খোঁজ নিয়ে সিলেট ও ঢাকা মধ্যে বিমানের ভাড়ার এই বৈষম্য দূর করে ভাড়ার বিষয়টি সমন্বয় করা হবে। 


সিলেটভিউ২৪ডটকম / ডি.আর/ এনএফ