ভারতের উজান থেকে আসা পাহাড়ি ঢল আর অব্যাহত বৃষ্টিপাতে বেড়েছে সুনামগঞ্জের সুরমা,কুশিয়ারা, যাদুকাটাসহ সকল নদনদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে বন্যার শঙ্কা দেখা দিয়েছে। গেল ২৪ ঘন্টায় সুনামগঞ্জ ১৫০ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।



পাহাড়ি ঢল আর টানা বৃষ্টিপাতে সুরমা নদীর পানির ছাতক পয়েন্টে  বিপদ সীমার ৬২ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে পানি পানি প্রবাহিত হচ্ছে। দুপুর ১২ টায়  সুনামগঞ্জ পয়েন্টে বিপদসীমা ১ সেন্টির মিটার উপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছে। বিপদসীমা সীমা অতিক্রম করায় নদী তীনবর্তী নিম্নাঞ্চলে শঙ্কা দেখা দিয়েছে। পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকলে জেলার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হতে পারে বলে জানিয়েছেন পানি উন্নয়ন বোর্ড।

 


 এতে নিম্নাঞ্চলের কোথাও কোথাও স্বল্প মেয়াদি বন্যা পরিস্থিতি দেখা দিতে পারো বলে জানিয়েছেন সুনামগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মামুন হাওলাদার। 


এদিকে পাহাড়ি ঢলে জেলার দোয়ারাবাজার ও ছাতকের নিম্নাঞ্চলের বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায়  দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে পানিবন্দী বাসিন্দাদের। প্রবল ঢলে বাঁধ ভেঙ্গে তলিয়ে গেছে দোয়ারাবাজার উপজেলা সুরমা, লক্ষীপুর ইউনিয়নের অন্তত ৩০ টি গ্রামের রাস্তাঘাট ও নিচু এলাকার ঘরবাড়ি। পানিবন্দী অবস্থায় দিন কাটছে অন্তত ৫০ হাজার মানুষের।
পাহাড়ি ঢল অব্যাহত থাকলে এসব এলাকায় বন্যা পরিস্থিতি আরও অবনতি হওয়ার শঙ্কা এলাবাসীর।

 

বন্যা মোকাবেলায় সকল ধরনের প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে জেলা প্রশাসন ও সংশ্লিষ্ট দপ্তর এমনটাই জানালেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ রাশেদ ইকবাল চৌধুরী । 

 

সিলেটভিউ২৪ডটকম /শহিদনুর / মাহি