প্রকাশিত: ২৬ জানুয়ারী, ২০২৩ ০০:০৩ (রবিবার)
সিলেটজুড়ে আনোয়ারুজ্জামানের হাওয়া?

চলতি বছরের মাঝামাঝি সময়ে সিলেট সিটি কর্পোরেশন (সিসিক) নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা। এ নির্বাচনকে ঘিরে গত এক বছরেরও বেশিস সময় ধরে আওয়ামী লীগের অন্তত হাফ ডজন নেতা চষে বেড়াচ্ছেন পুরো মহানগর।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ নানাভাবে নিজেদের নির্বাচনে প্রার্থিতার কথাও জানান দিচ্ছিলেন অনেকে। তবে হঠাৎ সব আলোচনার মোড় ঘুরিয়ে দিয়েছেন যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে- মঙ্গলবার (২৪ জানুয়ারি) তাঁকে দেওয়া হয়েছে আওয়ামী লীগের হাই কমান্ডের গ্রিন সিগন্যাল। আগামী সিসিক নির্বাচনে আনোয়ারাজ্জামান-ই হচ্ছেন নৌকার কান্ডারি।

গত ২২ জানুয়ারি দেশে আসেন আনোয়ারুজ্জান চৌধুরী। তাঁকে বরণে সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে দলীয় নেতাকর্মীদের ঢল নামে। সেখানে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল ও সিলেট-৩ আসনের এমপি হাবিবুর রহমান হাবিব। এছাড়াও আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা সেখানে উপস্থিত ছিলেন।  

ওসমানী বিমানবন্দর থেকে মোটর শোভাযাত্রা করে তাকে নিয়ে আসা হয় নগরীতে। দলের কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতাকর্মীদের উপস্থিতিতে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন এবং হযরত শাহজালাল (র.) মাজার জিয়ারত করেন আনোয়ারুজ্জান চৌধুরী।

এছাড়া বিমানবন্দর এলাকা থেকে আম্বরখান পর্যন্ত তার নামে বিভিন্ন ব্যানার ফেস্টুন লাগান নেতাকর্মীরা। এতেই তার মনোনয়নপ্রাপ্তির বিষয়টি অনেকটাই খোলাসা হয়ে যায়।

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল জানান, সম্প্রতি আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য সাবেক সাংসদ সৈয়দা জেবুন্নেছা হক দলীয় সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে দেখা করেন। সেসময় অন্যান্য বিভিন্ন বিষয় আলোচনার পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জানান, সিলেট সিসি কর্পোরেশন নির্বাচনে আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর নাম বিবেচনা করা হচ্ছে। তাকে দিয়ে নির্বাচর করার অভিপ্রায় ব্যক্ত করেন প্রধানমন্ত্রী। সৈয়দা জেবুন্নেছা হক সিলেটের বিভিন্ন জায়গায় এই কথা বলেছেন।

নাদেল আরো বলেন, এছাড়া আমি আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরসহ আরো কিছু নেতাকর্মীদের কাছথেকে এ বিষয়ে ইতিবাচক ইঙ্গিত পেয়েছি। তবে দলীয় সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং মনোনয়ন বোর্ডের পক্ষ থেকে যে সিদ্ধান্ত আসবে তাতে বিষয়টি পরিষ্কার হবে। কেন্দ্র থেকে যে নির্দেশ আসবে আমরা তা মেনে নিবো।

যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী বর্তমানে ঢাকায় অবস্থান করছেন। বুধবার আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করার কথা তার।

এ বিষেয়ে আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী বলেন, আমি সিটেলের সন্তান। সেলেটেই আমার পড়াশুনা, বেড়ে উঠা, রাজনিতি করা। আমি আওয়ামী লীগের একজন কর্মী। প্রধানমন্ত্রী যেখানে কাজ করতে বলবেন, সেখানেই কাজ কাজ করব। দল থেকে যে সিদ্ধান্ত আসবে মাথা পেতে নিবো। দলের জন্য আজীবন কাজ করে যাব।


সিলেটভিউ২৪ডটকম / নাজাত / ডি.আর