প্রকাশিত: ১১ মার্চ, ২০২৩ ১৬:৩৫ (রবিবার)
শাবিতে ‘টেকসই সমুদ্র সম্পদ ব্যবস্থাপনায়’ ১৪ দিনব্যাপি প্রশিক্ষণ শুরু ১২ মার্চ

‘টেকসই সমুদ্র সম্পদ ব্যবস্থাপনা’ নিয়ে ১৪ দিনব্যাপি এক আন্তজার্তিক প্রশিক্ষণ ও সিম্পোজিয়াম শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত হবে।
 

যুক্তরাজ্যের সমুদ্র বিষয়ক সংস্থা পোগো (চঙএঙ) এবং শাবির সমুদ্রবিজ্ঞান বিভাগের যৌথ উদ্যোগে আগামী ১২ মার্চ থেকে ২৫ মার্চ পর্যন্ত এ প্রশিক্ষণ ও সিম্পোজিয়াম অনুষ্ঠিত হবে।
 

শনিবার (১১মার্চ) সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রেসক্লাব কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানিয়েছেন আয়োজক কমিটির আহবায়ক বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সুব্রত সরকার।
 

আয়োজকদের দাবি, দেশে প্রথমবারের মত এই আন্তজার্তিক ট্রেনিং প্রোগ্রামের আয়োজন করতে যাচ্ছে সমুদ্রবিজ্ঞান বিভাগ।
 

সংবাদ সম্মেলনে আহবায়ক সুব্রত সরকার বলেন, জাতিসংঘের সমুদ্রবিজ্ঞান দশক (২০২১-২০৩০) প্রোগ্রাম ও ভারতের জাতীয় সমুদ্র তথ্যসেবা কেন্দ্রের সহযোগিতায় ১২ মার্চ থেকে ২৩ মার্চ পর্যন্ত এ প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হবে। 
বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে এবং সিলেট শহরের একটি অভিজাত হোটেলে প্রশিক্ষণ কর্মসূচির আয়োজন করা হয়েছে।

এতে দেশ এবং বিদেশের ২২ জন প্রশিক্ষণার্থী অংশগ্রহণ করবেন।
 

প্রশিক্ষক হিসেবে যুক্তরাজ্যের প্লাইমাউথ বিশ্ববিদ্যালয়, ভারতের জাতীয় সমুদ্র তথ্যসেবা কেন্দ্র, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়, চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ও বেসরকারী গবেষণা প্রতিষ্ঠান সিপিআরডির মোট ৬ জন প্রতিনিধি সমুদ্র গবেষণার নানা দিক সম্পর্কে এতে প্রশিক্ষণ দিবেন। প্রশিক্ষণের শেষ দুই দিন ‘ফিল্ড ট্রিপ’ অনুষ্ঠিত হবে।

আহবায়ক সুব্রত সরকার বলেন, এছাড়া ট্রেনিংয়ের পর দুই দিনব্যাপী আন্তজার্তিক সিম্পোজিয়াম অনুষ্ঠিত হবে। এর মধ্যে ২৪ মার্চ সিম্পোজিয়ামের উদ্বোধন করবেন শাবি উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ। ২৫ মার্চ অনুষ্ঠানের সমাপনী অনুষ্ঠিত হবে।

সিম্পোজিয়ামে বিভিন্ন টেকনিক্যাল সেশনে সমুদ্র সম্পদের সঠিক ব্যবহার, সুনীল অর্থনীতির ক্রমবিকাশ, সমুদ্র সম্পদের সঠিক ব্যবহার, সমুদ্র ব্যবস্থাপনা ইত্যাদি বিষয়ে প্রবন্ধ ও নিবন্ধ উপস্থাপিত করা হবে।

‘এই প্রোগ্রাম টেকসই উন্নয়নে কিভাবে ভূমিকা রাখতে পারবে এবং এর মাধ্যমে দেশের মানুষ কী বার্তা পাবে’- এক প্রশ্নের জবাবে আহবায়ক কমিটির সচিব মিজানুর রহমান বলেন, ‘‘এসডিজির ১৪ নম্বরের অভীষ্ট লক্ষ্যমাত্রা ‘জলজ জীবন’, এই লক্ষ্য পূরণে সহযোগিতা করা।
 

আমাদের এই প্রশিক্ষণ প্রোগ্রামে এবং সিম্পোজিয়ামে সমুদ্রের জলজীবনকে কিভাবে অনুকূলে রাখা যায়, সমুদ্রের সবুজ অর্থনীতি কিভাবে জাতীয় জীবনে সমৃদ্ধি নিয়ে আসতে পারে, সামুদ্রিক পরিবেশকে সব সময় কিভাবে বিশুদ্ধ রাখা যায় এই বিষয়গুলো ফোকাস করা হবে।

তিনি আরও বলেন, এছাড়া ডাটা সায়েন্স, স্যাটেলাইট পর্যবেক্ষণ করে ডাটা সংগ্রহ ও বিশ্লেষণ, প্লাস্টিক কনজারভেশন, সবুজ অর্থনীতির চ্যালেঞ্জ নিয়ে আলোচনা করা হবে। এতে বিভিন্ন অঞ্চলের প্রখ্যাত বিজ্ঞানী, গবেষক, পলিসি মেকার ও শিক্ষার্থীরা সমুদ্র সম্পদের সুষ্ঠু ও টেকসই ব্যবস্থাপনা বিষয়ে প্রবন্ধ ও নিবন্ধ উপস্থপন করবেন।’’যোগ করেন সহকারী অধ্যাপক মিজানুর রহমান।

এছাড়া মিজানুর রহমান জানান, শাবির সমুদ্র বিজ্ঞান বিভাগ এ বিশ্ববিদ্যালয়েল সবচেয়ে কনিষ্ঠ বিভাগ। ২০১৭ সালে বিভাগটি একাডেমিক কার্যক্রম শুরু করেছে। প্রতিষ্ঠার পর থেকে এই বিভাগের সবচেয়ে বড় প্রোগ্রাম এবং দেশের মধ্যে এই প্রোগ্রাম প্রথম আয়োজন করা হচ্ছে।
 

এতে জাপান ভিত্তিক সংস্থা নিপ্পন ফাউন্ডেশন আর্থিকভাবে সহযোগিতা করছে। এছাড়া পৃষ্ঠপোষকতায় রয়েছে অক্সফাম, স্টপ হলিডেইজ লি., ট্রেড ওয়ার্ল্ড ও ইবনে সিনা।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন- সমুদ্র বিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো. সাজ্জাদুর রহমান, মেহনাজ ইসলাম সোনিয়া, প্রভাষক মো. আহসানুল ইসলাম, ফয়সাল ছোবহান, আবু বকর সিদ্দিক, মো. আজিজুল ফজলসহ প্রেসক্লাবের সংবাদিকরা।

 

সিলেটভিউ২৪ডটকম/নোমান/এসডি-০২