প্রকাশিত: ১৬ মার্চ, ২০২৩ ১৯:০৫ (মঙ্গলবার)
প্রেম নিয়ে মুখ খুললেন অঞ্জু ঘোষ

‘বেদের মেয়ে জোসনা’ সিনেমায় অভিনয় করে দুই বাংলায় ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেন বাংলাদেশি অভিনেত্রী অঞ্জু ঘোষ। দীর্ঘ ক্যারিয়ারে প্রায় ৩০০ সিনেমায় অভিনয় করেছেন তিনি। কিন্তু তাকে খ্যাতির শীর্ষে তুলে দিয়েছিল ‘বেদের মেয়ে জোসনা’। সেই অঞ্জু ঘোষ এখন ‘লাইট-ক্যামেরা-অ্যাকশন’ থেকে অনেক দূরে।
 

সিনেমা থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছেন অনেক আগেই। বর্তমানে অনেকটা নীরবে নিভৃতে দিন কাটাচ্ছেন কলকাতার সল্টলেক এলাকায়। গ্ল্যামার জগৎ থেকে সরে গিয়ে এখন কীভাবে সময় কাটে অঞ্জু ঘোষের? এ প্রশ্নের উত্তরে একটি সংবাদমাধ্যমকে অঞ্জু ঘোষ জানান, পূজা পার্বণ করেই সময় চলে যায় তার।
 

তিনি বলেন, ‘আমার বাড়িতে মন্দির রয়েছে। ধর্মকর্ম পূজা-পার্বণ করেই সময় কেটে যায়। আমার বাড়িতে যেমন দুর্গাপ্রতিমা রয়েছে, তেমনি পবিত্র মক্কা, খাজা বাবার ছবিও রয়েছে। মানব ধর্মের চেয়ে বড় কোনো ধর্ম নেই।’
 

এই নায়িকার জীবনেও প্রেম এসেছিল। কিন্তু সেই প্রেম পরিণয় পর্যন্ত গড়ায়নি। তবে কারো নাম প্রকাশ্যে আনতে চান না তিনি। অঞ্জু বলেন, ‘এমনও সময় গেছে যে ঢাকায়, আমার বাড়ির দরজায় শুধুমাত্র আমাকে একবার দেখার জন্য সারারাত অপেক্ষা করেছেন। আমার প্রেমিকদের নামের তালিকা দীর্ঘ। তাদের নাম আর নাই বা বললাম। তারা সবাই এখন সংসার করছেন। চাই না তারা কেউ বিব্রত হোক।’

তিনি আরও বলেন, ‘সেই সময় অনেকেই আমার পেছনে ঘুরঘুর করত। আমি পাত্তা দিতাম না। মনে হতো, সবাই অর্থের মোহে আমাকে চাইত।’

বিয়ে না করার কারণ হিসেবে অঞ্জু ঘোষ বলেন, “বাংলাদেশের ‘ম’ আদ্যক্ষরযুক্ত একজন নায়কের সঙ্গে আমার সত্যিকারের মন দেওয়া-নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু সে আমাকে ধোঁকা দিয়েছে। আমি মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছিলাম। তারপর আর ওই পথে যাইনি।” পরিচালক এফ কবীর চৌধুরীর সঙ্গে অঞ্জুর প্রেম এবং বিয়ের খবর রটেছিল। যদিও অঞ্জু জানান, তাদের কোনোদিনই বিয়ে হয়নি।
 

নায়িকা জানান, তার প্রোডাকশন থেকে একটি সিনেমা তৈরি করা হয়। প্রচুর অর্থ লগ্নি করেন তিনি। সিনেমাটি মুক্তির সময়ে কবীর আবদার করেন সেটি তার ড্রিমল্যান্ড প্রোডাকশন থেকে রিলিজ করতে হবে। অঞ্জু বেঁকে বসায় দুজনের মধ্যে দ্বন্দ্ব লেগে যায়। তার দাবি, ‘চুক্তিপত্রে আমি যে স্বাক্ষর করেছিলাম তা জাল করে বিয়ের কাবিননামা বানানো হয়েছিল। এটা সত্যি যে, এফ কবীর আমার শুভাকাঙ্ক্ষী ছিলেন।’
 

অঞ্জু ঘোষের প্রকৃত নাম অঞ্জলি। ১৯৭২ থেকে ১৯৮১ সাল পর্যন্ত চট্টগ্রামের মঞ্চ-নাটকে অভিনয় করেন তিনি। ১৯৮২ সালে এফ কবীর চৌধুরী পরিচালিত ‘সওদাগর’ সিনেমার মাধ্যমে তার চলচ্চিত্রে অভিষেক ঘটে। ১৯৯৮ সালে বাংলাদেশ ছেড়ে কলকাতায় চলে যান অঞ্জু ঘোষ। ২০১৮ সালে তিনি সাইদুর রহমান সাইদ পরিচালিত বাংলাদেশি চলচ্চিত্র ‘মধুর ক্যান্টিন’-এ অভিনয় করেন।
 


সিলেটভিউ২৪ডটকম/ডেস্ক/এসডি-১৮