প্রকাশিত: ০১ এপ্রিল, ২০২৩ ০১:১১ (বুধবার)
যে সড়কে ১২০ কিলোমিটারের কম গতিতে গাড়ি চালালে জরিমানা!

আবুধাবির শেখ মোহাম্মদ বিন রশিদ সড়ক

দুর্ঘটনার পরিমাণ কমাতে সবসময় নির্দিষ্ট ও কম গতিতে গাড়ি চালানোর জন্য নির্দেশনা দেওয়া হয়। আবার কোথাও কোথাও একই কারণে গতি বাড়িয়েও চলতে বলা হয়।

তেমনই মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাতের আবুধাবির শেখ মোহাম্মদ বিন রশিদ সড়কে দুর্ঘটনা এড়াতে সর্বনিম্ন গতিসীমা নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে ঘণ্টায় ১২০ কিলোমিটার!

দেশটির পুলিশ জানিয়েছে, এর চেয়ে কম গতিতে ওই সড়কে গাড়ি চালালে ৪০০ দিরহাম জরিমানা গুণতে হবে। পহেল মে থেকে এই নিয়ম কার্যকর হবে। আমিরাতের ৪০০ দিরহাম বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ১২ হাজার টাকার সমান।

পুলিশ আরও জানিয়েছে, শেখ মোহাম্মদ বিন রশিদ সড়কে সর্বোচ্চ গতিসীমা নির্ধারণ করা হয়েছে ১৪০ কিলোমিটার। সড়কটির বাঁ পাশ থেকে প্রথম ও দ্বিতীয় লেনে সর্বনিম্ন ১২০ কিলোমিটার গতিতে গাড়ি চালাতে হবে। তবে যারা তৃতীয় লেন দিয়ে গাড়ি চালাবেন, তারা এরচেয়ে কম গতিতে চললে সমস্যা নেই। তৃতীয় লেনটিতে সর্বনিম্ন গতিসীমা নির্ধারণ করা হয়নি। এই লেনটি ভারী যান চলাচলের জন্য নির্দিষ্ট করা হয়েছে।

এপ্রিল মাসে ওই দু’টি লেনে কম গতিতে গাড়ি চালানোর সময় ধরা পড়লে সতর্কতা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হবে। কিন্তু পহেলা মে থেকে আর্থিক জরিমানা গুণতে হবে।

আবুধাবির সেন্ট্রাল অপারেশন্স সেক্টরের পরিচালক মেজর জেনারেল আহমেদ সাইফ বিন জায়তুন আল মুহায়িরি সব চালকদের ট্রাফিক আইন মেনে চলতে আহ্বান জানিয়েছেন।

তিনি বলেছেন, ‘সর্বনিম্ন গতিসীমা নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে সড়কের নিরাপত্তা বৃদ্ধির জন্য। এটি কম গতির গাড়িগুলোকে নির্দিষ্ট লেন ব্যবহারে উদ্বুদ্ধ করবে।’

এছাড়া এ কর্মকর্তা মনে করিয়ে দিয়েছেন লেন পরিবর্তনের সময় সতর্ক থাকতে হবে এবং এক গাড়ি থেকে আরেক গাড়ির মধ্যে নির্দিষ্ট দূরত্ব বজায় রাখতে হবে।

সিলেটভিউ২৪ডটকম/ঢাকাপোস্ট/শাদিআচৌ-০৩