প্রকাশিত: ০৭ এপ্রিল, ২০২৩ ১৮:৫৫ (সোমবার)
নারীর প্রতি কুরুচিপূর্ণ আচরণ সম্মিলিত নাট্য পরিষদ প্রশ্রয় দেবে না

সম্প্রতি এক জ্যেষ্ঠ নাট্যকর্মীর বিরুদ্ধে নারী নিপীড়নের অভিযোগ ওঠেছে। এনিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চলছে নানা আলোচনা সমালোচনা। এর প্রেক্ষিতে শুক্রবার গণমাধ্যমে একটি বিবৃতি প্রদান করেছে সম্মিলিত নাট্য পরিষদ, সিলেট।
 

সম্মিলিত নাট্য পরিষদ সিলেটের সভাপতি রজত কান্তি গুপ্ত ও সাধারণ সম্পাদক মোস্তাক আহমেদ সাক্ষরিত এই বিবৃতিতে বলা হয়- সমাজের সকল অপসংস্কৃতি, কুপমুন্ডকতা, অন্যায়-অবিচারের বিরুদ্ধে সমাজকে সচেতন করা ও প্রতিবাদ জানানো নাট্যকর্মীদের প্রধান দায়িত্ব। সংস্কৃতির পরিচয় বহণকরে সমাজকে আলোকিত করাই সুস্থ ও সৃজনশীল নাট্যকর্মীর অঙ্গীকার।

সম্মিলিত নাট্য পরিষদ সিলেট এর নেতৃবৃন্দ এক বিবৃতিতে বলেন, সম্মিলিত নাট্য পরিষদ সিলেট মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের হাজার বছরের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য কে ধারণ করে গণমানুষের আকাঙ্খা পূরণে নাট্য আন্দোলনের মাধ্যমে সমাজের সকল অসংগতি, অপসংস্কৃতি, দূর্নীতি, সাম্প্রদায়িকতা ও নারীর প্রতি বৈষম্য - নির্যাতনের বিরুদ্ধে  এবং সুস্থ ও সৃজনশীল আলোকিত সমাজ বির্নিমানে কাজ করছে। নারী-পুরুষের মিলিত শক্তিতে মঞ্চ আলোকিত করে সহকর্মীর সম্মান ও মর্যাদা রক্ষা করে এগিয়ে চলাই নাট্যকর্মীদের কাজ।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে, অনলাইন পোর্টাল ও স্থানীয় একটি সংবাদ পত্রে সিলেটের একটি নাট্য সংগঠনের সক্রিয় কর্মীর বিরুদ্ধে একজন নারী নাট্যকর্মীর ব্যাক্তিগত ফেইসবুক ওয়ালে আনিতো স্টাটাস প্রসঙ্গে নেতৃবৃন্দ বলেন, এরকম ঘটনা অত্যন্ত দুঃখজনক, নিন্দনীয় ও নারীর প্রতি অসম্মানজনক। নারী পুরুষের বৈষম্য, নারীর প্রতি অশ্রদ্ধা, কুরুচিপূর্ণ আচরণ কিংবা সমাজ কলুষিত হয় এমন কোনো ঘটনা বা বক্তব্যকে নাট্য পরিষদ প্রশ্রয় দেয়নি এবং ভবিষ্যতে দিবেও না।

বিবৃতিদাতারা বলেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম সহ অনলাইন ও একটি স্হানীয় পত্রিকায় নাট্য পরিষদের ভুমিকা নিয়ে অনাকাঙ্ক্ষিত প্রশ্ন তুলা হয়েছে যা খুবই আপত্তিকর ও নিন্দনীয়। পরিষদ তার সাংগঠনিক ও গনতান্ত্রিক নিয়ম অনুযায়ী চলে আসছে। পরিষদের কাছে নাট্য কর্মীদের যেকোনো অভিযোগ লিখিত বা সরাসরি করা হলে তা সাংগঠনিক নিয়মে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। উল্লেখিত বিষয়ে নাট্য পরিষদ সাংগঠনিকভাবে ব্যবস্হা গ্রহণ করেছে এবং তা পরিষদ গুরুত্বের সঙ্গে পর্যালোচনা করছে। আমাদের নারী সহকর্মীদের সম্মান ও মর্যাদা রক্ষা করে চলা থিয়েটারের শিক্ষা। তাই যেকোনো নারী নাট্যকর্মীর নিরাপত্তা ও সম্মানের প্রশ্নে আমরা তাঁর পাশে সবসময়ই আছি এবং থাকবো। 
 


সিলেটভিউ২৪ডটকম/প্রেবি/পল্লব-১১