প্রকাশিত: ০৭ এপ্রিল, ২০২৩ ২৩:৩৫ (রবিবার)
কোম্পানীগঞ্জে সাংবাদিকের বাড়িতে হামলা, ভাঙচুর ও লুটপাটের অভিযোগ

সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি ও দৈনিক বিজয়ের কণ্ঠ’র কোম্পানীগঞ্জ প্রতিনিধি সাংবাদিক মঈন উদ্দিন মিলনের বসতবাড়িতে হামলা, ভাঙচুর ও লুটপাটের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

হামলায় তাঁর বাড়ির পাঁচ নারীসহ অন্তত ১০ জন গুরুতর আহত হয়েছেন। আহতদের উদ্ধার করে স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এরমধ্যে ৩ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদেরকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে উপজেলার কলাবাড়ী গ্রামে এ হামলার ঘটনা ঘটে। স্থানীয় একটি পাথর ও বালুখেকো চক্র এই ঘটনা ঘটিয়েছে বলে সাংবাদিক মঈন উদ্দিন মিলনের অভিযোগ।  

হামলায় আহতরা হলেন- করিম মিয়া (৫৫), রফিক মিয়া (৪৭), মঈন উদ্দিন মিলন (৪২), আমির মিয়া (৩৭), হোসেন আহমদ (২৯), ফজিরুন নেছা (৩২), রুমেনা বেগম (১৭), রাহেনা বেগম, আসমা আক্তার ও দুলভি বেগম।

এ বিষয়ে মঈন উদ্দিন থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানা গেছে। 

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার শেষ বিকেলে ইফতারের প্রস্তুতিতে ব্যস্ত অবস্থায় মঈন উদ্দিন মিলনের বাড়ির সীমানাঘেঁষা বাঁশের বেড়া তুলতে শুরু করেন প্রতিবেশী ফয়জুল আলী, তেরা মিয়া, তজই হাজী ও জৈনউদ্দিন এবং তাদের সহযোগিরা। এসময় মিলনের বড় ভাই রফিক উদ্দিন ঘটনাস্থলে গিয়ে বেড়া তোলার কারণ জানতে চাইলে আগে থেকে দেশীয় অস্ত্রসহ ওঁৎ পেতে থাকা ফয়জুল বাহিনী তার উপর অতর্কিত হামলা চালায়। এসময় তিনি আত্মরক্ষার্থে বাড়ির দিকে দৌঁড় দিলে হামলাকারীরাও পেছনে ধাওয়া করে। পরে বাড়ির আঙ্গিনায় ফেলে তাকে বেধড়ক মারপিট করা হয়। এসময় তাকে বাঁচাতে স্ত্রী-সন্তানসহ পরিবারের অন্যান্য সদস্য এগিয়ে আসলে তাদের উপরও হামলা চালানো হয়। একপর্যায়ে হামলাকারীরা ঘরে ঢুকে ভাঙচুর ও লুটপাট চালায়।

হামলায় সাংবাদিক মিলন, তার বড় ভাই, ভাবী, ভাতিজাসহ ১০ জন আহত হন। হামলাকারীরা যাওয়ার সময় নগদ ২ লাখ ১৭ হাজার টাকা লুট করে নেয় বলে অভিযোগ আহত সাংবাদিক পরিবারের।

কোম্পানীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হিল্লোল রায় জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি। অভিযোগ পেলে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সিলেটভিউ২৪ডটকম / ডি.আর