প্রকাশিত: ২০ এপ্রিল, ২০২৩ ০৪:২৯ (শুক্রবার)
বঞ্চিতরা ‘চুপ’, ব্যস্ত আনোয়ার, সরব বাবুল

সকল জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে সিলেট সিটি করপোরেশনের আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী হিসেবে আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর নাম ঘোষণার পর থেকে ‘চুপ’ হয়ে আছেন বঞ্চিতরা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে আনোয়ারকে অভিনন্দন জানিয়ে কেউ চলে গেছেন দেশের বাইরে, আবার কেউ রয়েছেন নিরব। তবে সামাজিক ও রাজনৈতিক নানা কর্মকান্ডে নিযুক্ত করে নিজেকে ব্যস্ত রেখেছেন আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী। এছাড়া জাতীয় পার্টির প্রার্থী শিল্পপতি নজরুল ইসলাম বাবুলও মাঠে সরব রয়েছেন। বিভিন্ন কৌশলে তিনি জনসম্পৃক্ততা বাড়ানোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

গত ১৫ এপ্রিল সিলেটসহ দেশের পাঁচ সিটি করপোরেশনে মেয়র পদে দলীয় প্রার্থী নাম ঘোষনা করে আওয়ামী লীগ। সিলেট সিটি করপোরেশনে (সিসিক) দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন ১০ জন। বাকি ৯ জনকে পেছনে ফেলে মনোনয়ন বাগিয়ে নেন যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী। এতে কিছুটা হলেও হতাশ হন মনোনয়ন বঞ্চিতরা। তবে শেষ পর্যন্ত তারা দলীয় সিদ্ধান্ত মেনে ফেসবুকে আনোয়ারুজ্জামানকে নৌকার প্রার্থী হিসেবে মেনে নিয়ে অভিনন্দন জানান। এদিকে, দলীয় মনোনয়ন ঘোষণার আগের দিন ওমরাহ পালনের উদ্দেশ্যে সৌদি আরবে চলে যান সিলেট সিটি করপোরেশনের চারবারের নির্বাচিত কাউন্সিলর ও মনোনয়ন প্রত্যাশী আজাদুর রহমান আজাদ। ঈদুল ফিতরের দিন তিনি দেশে ফেরার কথা রয়েছে। আর মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেন যুক্তরাজ্যে চলে যান মনোনয়ন ঘোষণার পরদিন। বাকি ৭ মনোনয়ন বঞ্চিত সিলেটে অবস্থান করলেও তারা অনেকটা ‘চুপ’ রয়েছেন। মনোনয়ন পাওয়ার পর গত সোমবার আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী সিলেট ফিরলে জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ এবং অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী বিমানবন্দরে উপস্থিত থাকলেও অনুপস্থিত ছিলেন বঞ্চিতরা। কেবলমাত্র মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আরমান আহমদ শিপলু বিমানবন্দরে যান আনোয়ারকে স্বাগত জানাতে।

দলীয় সূত্র জানায়, অনেকটা অভিমান করেই মনোনয়ন বঞ্চিতরা কিছুটা দূরে রয়েছেন। তবে বঞ্চিতদের কেউই দলীয় প্রার্থীর বিরুদ্ধে বিদ্রোহী হওয়ার আশঙ্কা নেই। তফশিল ঘোষণার পর তারা প্রচারণায় নামবেন।

আনোয়ারুজ্জামানও মনে করেন বৃহৎ দল হিসেবে আওয়ামী লীগে দলীয় মনোনয়ন নিয়ে প্রতিযোগিতা থাকতে পারে কিন্তু কোন বিভেদ নেই। সময়মতো সকল নেতাকর্মী নৌকার পক্ষে ঐক্যবদ্ধ হয়ে মাঠে নামবেন বলে আশাবাদী তিনি।

এদিকে, প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পার করছেন আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী। প্রতিদিন বিভিন্ন সামাজিক, ধর্মীয় ও রাজনৈতিক কর্মসূচিতে অংশ নিয়ে তিনি আগামী নির্বাচনে নৌকার পক্ষে জনরায় দেওয়ার অনুরোধ করছেন। উন্নয়নের স্বার্থে এবার আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীকে মেয়র পদে নির্বাচিত করার আহŸান জানাচ্ছেন তিনি।

গতকাল বুধবার তৈয়ব কামাল লতিফিয়া মাদরাসা ক্বিরাত কেন্দ্রে মাসব্যাপী দারুল ক্বেরাতের সমাপনী অনুষ্ঠানে অংশ নেন আনোয়ারুজ্জামান। এছাড়া তিনি নগরীর শাহীঈদগাহ, কাজিটুলা ও খাসদবির দারুস সালামা মাদ্রাসায় ইফতার বিতরণ করেন। এছাড়া নগরীর দক্ষিণ সুরমার নবগঠিত তিনটি ওয়ার্ডের শীর্ষ নেতৃবৃন্দ এবং ১৮নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাথে মতবিনিময় করেন।

এদিকে, সিসিক নির্বাচনকে সামনে রেখে বসে নেই জাতীয় পার্টির মেয়র প্রার্থী নজরুল ইসলাম বাবুল। গত মঙ্গলবার তিনি সিলেটের সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় করেছেন। এসময় তিনি সিলেটের উন্নয়নে তার কিছু পরিকল্পনা তুলে ধরেন। গতকাল বুধবার তিনি নগরীর সাগরদিঘীরপাড়, বন্দরবাজার ও দক্ষিণ সুরমার বিভিন্ন স্থানে মতবিনিময় করেছেন।

সিলেটভিউ২৪ডটকম/শাদিআচৌ