প্রকাশিত: ২০ এপ্রিল, ২০২৩ ১৯:৪০ (সোমবার)
মাধবপুরে দু পক্ষের সংঘর্ষে আহত ৬০, দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার

হবিগঞ্জের মাধবপুরে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দু-দলের সংঘর্ষে নারী, বৃদ্ধসহ অর্ধশতাধিক লোক আহত হয়েছেন।
 

বৃহস্পতিবার সকালে কয়েক ঘন্টা ব্যাপি উপজেলার বুল্লা ইউনিয়নের বুল্লা গ্রামে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।
 

এর মধ্যে ৯ জন কে গুরুতর আহত অবস্থায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসাপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বাকী আহতরা মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিচ্ছেন। খবর পেয়ে মাধবপুর সার্কেলের এএসপি নির্মুলেন্দু চক্রবর্ত্তী ও মাধবপুর থানার ওসি আব্দুর রাজ্জাকের নেতৃত্ব বিপুল সংখ্যক পুলিশ ঘটনা স্থলে গিয়ে প্রায় এক ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ সময় সংঘর্ষে ব্যবহৃত বেশ কিছু ফিকল, লাঠিসোটা ও কুচ জব্দ করা হয়।
 

পুলিশ ও গ্রামবাসী সূত্রে জানা যায়, বুধবার রাতে বুল্লা বাজারে ধলাই মিয়ার পক্ষের কয়েকজন যুবক ও হেলাল মেম্বারের পক্ষে কয়েকজন যুবকের মধ্যে কথা কাটাকাটি ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এর জের ধরে প্রতিদ্বন্দ্বি দু-গ্রুপের মধ্যে আধিপত্য কে কেন্দ্র করে উত্তেজনা দেখা দেয়। পরদিন বৃহস্পতিবার সকালে উভয় পক্ষের লোকজন পূর্ব প্রস্তুতি নিয়ে দেশীয় অস্ত্র সস্ত্র নিয়ে গ্রামের মাঠে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। কয়েক ঘন্টার এ সংঘর্ষে উভয় পক্ষের নারী বৃদ্ধ সহ ৫৮ জন কমবেশী আহত হন। এর মধ্যে গুরুতর আহত অবস্থায় আদম খা (৫৫), আজদু মিয়া (৬৫), সমসু মিয়া (৬০), ধলাই মিয়া (৭০), কাউছার মিয়া (৩৮), রেনু মিয়া (৪০), আরিফ (২০), আশরাফ (৩৬) ও জাহেদ মিয়া কে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বাকী আহতরা মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিচ্ছেন।
 

মাধবপুর থানার ওসি আব্দুর রাজ্জাক বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনা স্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে এবং বেশ কিছু দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়। এখন পরিস্থিতি স্বাভাবিক। এ ঘটনায় এখনও কোন মামলা হয়নি।
 

বুল্লা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান জানান বিষয়টি নিষ্পত্তির জন্য উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।


 


সিলেটভিউ২৪ডটকম/শামীম/এসডি-২৪