প্রকাশিত: ০৪ মে, ২০২৩ ১৬:৪৪ (রবিবার)
হাইকোর্টের রায়ে স্বস্তি পেলেন অমর্ত্য সেন

কলকাতা হাইকোর্টের রায়ে আপাতত স্বস্তি পেলেন ভারতের নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেন। আগামী ৬ মে শনিবার অমর্ত্য সেনের বাড়ি প্রতীচী খালি করে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। সেই নোটিশের ওপর অন্তর্বর্তী স্থগিতাদেশ দিয়েছে কলকাতা হাইকোর্ট।
 

বীরভূম জেলার জজ কোর্টে অমর্ত্য সেনের বাড়ি প্রতীচীর জমির মামলার নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে কোনো পদক্ষেপ নেওয়া যাবে না বলে জানিয়েছেন কলকাতা হাইকোর্টের সিঙ্গেল বেঞ্চের বিচারপতি বিভাস রঞ্জন দে।
 

আগামী বুধবার বীরভূম জেলার জজ কোর্টে হবে ওই মামলার শুনানি। আগামী ৬ মে’র মধ্যে শান্তিনিকেতনে প্রতীচীর জমি খালি করার জন্য অমর্ত্য সেনকে নোটিশ পাঠিয়েছিল বিশ্বভারতীর যুগ্ম রেজিস্টার। ওই বিজ্ঞপ্তির ওপর বৃহস্পতিবার (৪ মে) স্থগিতাদেশ দিলো কলকাতা হাইকোর্ট।
 

অপরদিকে বর্তমানে দুদিনের সফরে মালদায় আছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী। সেখানে বেশ কিছু সভা করার কথা রয়েছে তার। মালদা পৌঁছেই মমতা অমর্ত্য সেনের উদ্দেশ্যে বার্তা দিয়েছেন, আমি মালদায় আছি, কোনো অসুবিধা হলেই আমাকে জানাবেন।
 

বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্তৃপক্ষ শান্তিনিকেতনে অমর্ত্য সেনের বাড়ি প্রতীচী বুলডোজার নিয়ে ভাঙতে এলে রুখে দাঁড়ানোর নির্দেশ দিয়েছিলেন মমতা। নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেনকে হেনস্তা ও প্রতীচী থেকে উচ্ছেদের প্রতিবাদে আগামী ৬ ও ৭ মে শনিবার অমর্ত্য সেনের বাড়ির সামনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে দুদিনের ধর্ণায় বসছে তৃণমূল কংগ্রেস। ধর্না ছাড়াও পথসভার কথা রয়েছে সেখানে।
 

এই ধর্ণায় অংশ নেওয়ার কথা, গায়ক কবির সুমন, চলচ্চিত্র পরিচালক গৌতম ঘোষ, চিত্রশিল্পী শুভাপ্রসন্ন, যোগেন চৌধুরীসহ আরো অনেকের। ইতোমধ্যেই সেখানে মঞ্চ বাঁধার কাজ শুরু হয়ে গেছে।

বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্তৃপক্ষের অভিযোগ অমর্ত্য সেন জোরপূর্বক বিশ্বভারতীর ১৩ ডেসিমেল জমি দখল করে রেখেছেন। একাধিকবার জমি ফেরতের নোটিশ দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। ৬ মে শনিবার প্রতীচীর ১৩ ডেসিমেল জমি খালি করার চূড়ান্ত সময়সীমা বেঁধে দিয়েছে বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। এ নিয়ে নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেনের বাড়ি প্রতীচীতে নোটিশ দেওয়া হয়েছে।
 

গত মঙ্গলবার (২ এপ্রিল) মন্ত্রিসভার বৈঠকে অমর্ত্য সেনের শান্তিনিকেতনের বাড়ি প্রতীচীর সামনে শান্তিপূর্ণ অবস্থানে বসার নির্দেশ দেন মমতা। এই শান্তিপূর্ণ অবস্থানের নেতৃত্ব দিতে রাজ্যের মন্ত্রী চন্দ্রনাথ সিনহাকে নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তীর অভিযোগ, অমর্ত্য সেন বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৩ ডেসিমেল জমি জোর করে দখল করে রেখেছেন। ওই জমি ফেরত চেয়ে বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ অমর্ত্য সেনকে তিনবার চিঠি দিয়েছেন।
 

১৯৭১ সালের ভূমি দখলদারি উচ্ছেদের আইনে নোটিশ দেওয়া হয়েছে অমর্ত্য সেনকে।১৫ দিনের মধ্যে জমি খালি করার নির্দেশও দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। যদি ওই জমি তিনি নিজে খালি না করেন তাহলে বলপ্রয়োগ করে জমি দখল করে নেওয়া হবে বলেও নোটিশে হুঁশিয়ারি দিয়েছে বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ।



 

সিলেটভিউ২৪ডটকম/ডেস্ক/এসডি-৬৫