প্রকাশিত: ০৫ মে, ২০২৩ ০১:৩৬ (রবিবার)
ক্বীন ব্রিজে ‘মৃত্যুফাঁদ’

ছবি : আহমেদ শাহিন

সংস্কারের অভাবে সিলেটের ঐতিহ্য ব্রিটিশ আমলে স্থাপিত প্রায় শতবর্ষী ক্বীন ব্রিজের অবস্থা এখন ভগ্নদশা। দীর্ঘদিন ধরে মেরামতের অভাবে ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে মৃত্যুফাঁদে পরিণত হয়েছে এই ব্রিজটি। ব্রিজের মাঝখানে তৈরি হয়েছে গর্ত। ব্রিজটি কেবলমাত্র পথচারীরা ব্যবহার করতে পারবেন এমন ঘোষণা থাকলেও এর মধ্য দিয়ে অনায়াসে চলাচল করছে ছোট বড় যানবাহন।

 

ব্রিজের মধ্যখানে তৈরি হওয়া গর্তে প্রায়ই ঘটছে দুর্ঘটনা। ঝুঁকিপূর্ণ এই সেতুর ওপর দিয়ে প্রতিনিয়ত চলাচল করছেন লাখো মানুষ, চলছে অসংখ্য যানবাহন। এ ছাড়া পর্যটন এলাকা হওয়ায় চলাচল করছে হাজারো পর্যটক। সেতুটি শিগগিরই সংস্কার করা না হলে ভেঙে যেকোনো সময় ঘটতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা, বন্ধ হয়ে যেতে পারে যোগাযোগ ব্যবস্থা।

স্থানীয়রা বলছেন, আমরা আমাদের ইতিহাস ঐতিহ্যমণ্ডিত স্থানকে অবহেলা করে আসছি। কর্তৃপক্ষের অবহেলায় সিলেটের ঐতিহ্যবাহী এই ব্রিজটি দীর্ঘদিন ধরে মেরামত করা হয়নি। ব্রিজটি এখন খুবই ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। তার উপর ব্রিজের বেশ কয়েকটি জায়গায় গর্ত দেখা দিয়েছে। যেখানে প্রায়ই ঘটছে দুর্ঘটনা। যত দ্রুত সম্ভব ব্রিজটি মেরামত করা প্রয়োজন। না তাহলে যেকোনো সময় ঘটতে পারে দুর্ঘটনা।

 

সিলেট সিটি করপোরেশনের প্রধান প্রকৌশলী নূর আজিজুর রহমান সিলেটভিউ-কে জানান, ক্বীন ব্রিজ সংস্কার, রক্ষণাবেক্ষণের সকল দায়িত্ব সড়ক ও জনপথ বিভাগের। তবে মহানগরবাসীর চলাচলের স্বার্থে আমরা এটি শীঘ্রই মেরামত করে নিবো।

সড়ক ও জনপথ বিভাগ সিলেটের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মোস্তাফিজুর রহমান সিলেটভিউ-কে বলেন, ব্রিজের নির্মাণ ও পূর্ববর্তী সংস্কারকাজ রেলওয়ে বিভাগ করছে। ক্বীন ব্রিজ সংস্কারে আমরা রেলওয়ে বিভাগকে অর্থ বরাদ্দ দিয়েছে। তবে জরুরি ভিত্তিতে গর্তগুলোকে মেরামতের ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

১৯৩৬ সালে সুরমা নদীর ওপর নির্মিত হয় দৃষ্টিনন্দন এই স্টিলের ব্রিজটি। তৎকালীন রেলওয়ে বিভাগের নির্মাণ করা এই ১ হাজার ১৫০ ফুট দীর্ঘ ও ১৮ ফুট প্রশস্ত এই ব্রিজটি আসাম প্রদেশের গভর্নর স্যার মাইকেল ক্বীন এর নাম অনুসারে নামকরণ করা হয় ক্বীন ব্রিজ।

 

সিলেটভিউ২৪ডটকম/নাজাত