প্রকাশিত: ০৫ মে, ২০২৩ ১০:৫৩ (রবিবার)
সিলেটের প্রতি বিশেষ দুর্বলতা প্রধানমন্ত্রীর!

‘সিলেটের প্রতি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর একটি বিশেষ দুর্বলতা রয়েছে। যে কারণে সিলেটের মাটি ও মানুষের কল্যাণে তিনি বরাবরই আন্তরিকতায় পরিচয় দিয়ে গেছেন। দলীয় মানুষ না থাকার পরও তিনি উজার করে দিয়েছেন সবকিছু।’

বৃহস্পতিবার (৪ মে) সন্ধ্যায় নগরীর একটি অভিজাত হল রুমে সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের এক কর্মী সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য এসব কথা বলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক।

তবে অপরিকল্পিত উন্নয়নের খেসারত স্বরূপ সিলেটসীকে এখনও দিতে হচ্ছে। বলে জানান আওয়ামী লীগের এই প্রভাবশালী নেতা। এজন্য তিনি শ্রীভূমি সিলেট রক্ষায় এবার দলীয় নেতাকর্মীদের নির্বাচন যুদ্ধে মাঠে নামার আহবান জানান।

এছাড়াও আগমী ২১ জুন অনুষ্ঠিতাব্য সিলেট সিটি করপোরেশেনের নির্বাচন যেকোনো মূল্যে নির্বাচন কমিশন সুষ্ট ও নিরপেক্ষ ভাবে আয়োজনের জন্য প্রতিশ্রুতিবদ্ধ বলেও মন্তব্য করেন।
 
প্রয়াত বদর উদ্দিন আহমদ কামরান প্রসঙ্গকে সাবেক মন্ত্রী নানক নানক বলেন, দলে খন্দকার মোশতাকের অনুসারী যেমন রয়েছে, তেমনি মুজিবাদর্শের লড়াকু এবং ত্যাগী কর্মীরাও রয়েছেন। মোস্তাক বাহিনীর কারণেই বিগত দিনে এই নগরের অভিভাবক বদর উদ্দিন আহমদ কামরানকে হারতে হয়েছে। তিনি বলেন, এবার সেই সুযোগের পুনরাবৃত্তি দেখতে চায় না আওয়ামী লীগ। দলের প্রতিটি ওয়ার্ডে সভাপতি এবং সম্পাদকের ভোটকেন্দ্রগুলোতে সজাগ দৃষ্টি থাকবে আওয়ামী লীগের। যাদের ভোটকেন্দ্রের ফলাফল অনুযায়ী পুরস্কার এবং তিরস্কার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। এমন কোন কর্মকান্ড করবেন না যাতে করে রংপুরের পরিনতি ভোগ করতে হয়।
 
সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দা জেবুন্নেছা হক, প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেলসহ কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সিলেটের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতারা।
 
কর্মী সভায় সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমেদেরর সভাপতিত্বে ও জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আলী দুলাল ও মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক এটিএম হাসান জেবুল এর পরিচালনা করেন।

সিলেটভিউ২৪.কম/মাহি