প্রকাশিত: ০৫ মে, ২০২৩ ১৭:৪৫ (রবিবার)
প্রথমবারের মত ‘সিলেট ক্যান্সার কংগ্রেস’ অনুষ্ঠিত

সিলেট ক্যান্সার স্টাডি গ্রুপের উদ্যোগে ‘সিলেট ক্যান্সার কংগ্রেস’ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার (৫ মে শুক্রবার) সকালে সিলেটের একটি অভিজাত হোটেল এন্ড রিসোর্ট এ ‘সিলেট ক্যান্সার কংগ্রেস’ অনুষ্ঠিত হয়।
 

অনুষ্ঠিত ‘সিলেট ক্যান্সার  কংগ্রেস’-এ মডারেটর এর দায়িত্ব পালন করেন সহকারী অধ্যাপক ড. সরদার বানিউল আহমেদ এবং অধ্যাপক ড. দেবাশিষ পাটোয়ারীর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন- বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ডা. মো. শরফুদ্দিন আহমদ।
 

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন- ক্যান্সার বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. এম.এ হাই।

অতিথি হিসেবে ক্যান্সার রোগের বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা করেন সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজের প্রিন্সিপাল প্রফেসর ডা. শিশির রঞ্জন চক্রবর্তী, নর্থ ইস্ট মেডিকেল কলেজের প্রিন্সিপাল প্রফেসর ডা. শাহরিয়ার হোসেন চৌধুরী, জালালাবাদ রাগিব রাবেয়া মেডিকেল কলেজের প্রিন্সিপাল প্রফেসর ড. মো. আবেদ হোসেন, সিলেট উইমেনস মেডিকেল কলেজের প্রিন্সিপাল অধ্যাপক ডা. ফজলুর রহিম কায়সার, পার্ক ভিউ মেডিকেল কলেজের প্রিন্সিপাল অধ্যাপক ডা. দিলীপ কুমার ভৌমিক।
 

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন- সহকারী অধ্যাপক ড. এস্তেফছার হোছাইন। “সিলেট ক্যান্সার  কংগ্রেস" পৃষ্ঠপোষকতা করেন প্রফেসর ডাঃ মোঃ মোখলেস উদ্দিন, ডাঃ কামাল উদ্দিন।

ক্যান্সার  কংগ্রেস এ আরো বক্তব্য রাখেন প্রফেসর  ডাঃ মোহাম্মদ আলী,  প্রফেসর ডাঃ মাহবুব আলম, প্রফেসর  ডাঃ এম এ সালাম, প্রফেসর  ডাঃ মোঃ জাহাঙ্গীর কবির, প্রফেসর ডাঃ  নাজির উদ্দিন মোল্লা, প্রফেসর ডাঃ  স্বপন বন্দোপধ্যায়, প্রফেসর ডাঃ রাশেদুন্নবী, ডাঃ ফেরদৌস শাহরিয়ার শাহেদ, প্রফেসর  ডাঃ কামরুজ্জামান চৌধুরী, ডাঃ বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্য, ডাঃ আব্দুলাহ আল মাসুদ, ডাঃ মিজানুর রহমান ও ডাঃ ইসতিয়াক  আলম রাসেল,  ডাঃ রুহুল আমিন ভূইয়া প্রমুখ।
 

পরিশেষে ‘সিলেট ক্যান্সার  কংগ্রেস’ এ আগত সকল চিকিৎসক, ইঞ্জিনিয়ার, মেডিকেল ফিজিসিস্ট, বিভিন্ন পর্যায়ে ক্যান্সারের কারণ নির্ণয়, প্রতিরোধ, সনাক্তকরণ, চিকিৎসার সার্জারী, রেডিওথেরাপি, কেমোথেরাপি, হরমোনথেরাপী, ইমিউনোথেরাপি, ফিজিওথেরাপী, সকল সরকারী-বেসরকারী হাসপাতাল এর সাথে সম্পৃক্ত সকলকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন অধ্যাপক ডাঃ তৈমুর হোসেন তালুকদার।
 

বক্তারা বলেন, চিকিৎসা বিজ্ঞানের ভাষায় মানবদেহের কোষগুলির অস্বাভাবিক বৃদ্ধিকে ক্যান্সার বলে। এখন পর্যন্ত পৃথিবীতে যত ধরণের ক্যান্সার পাওয়া গেছে সেগুলোর মধ্যে অন্যতম হল স্তনের ক্যান্সার, ত্বকের ক্যান্সার, ফুসফুসের ক্যান্সার, কোলন ক্যান্সার এবং প্রোস্টেট ক্যান্সার ইত্যাদি। বিশ্ব ব্যাপী ভয়ংকর অসুখের নাম ক্যান্সার। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই এই রোগের কোনও সঠিক চিকিৎসা নেই। তবে প্রাথমিক অবস্থায় এই রোগটি ধরা পড়লে এবং সময়মত চিকিৎসা নিলে রোগটি থেকে বেচে যাওয়া সম্ভব। এই রোগ নিরাময়ের চেয়ে প্রতিরোধ করা সবচেয়ে বেশি কার্যকর উপায়। তাই ক্যান্সার সম্পর্কে সচেতনতা ভীষন জরুরী। মনে রাখতে হবে ক্যান্সারের চিকিৎসা অনেক ব্যয়বহুল। এই ব্যয় সাধারণ মানুষের পক্ষে বহন করা কষ্টকর। বাংলাদেশের মতো জনবহুল দেশে এর সুফল সবার কাছে পৌঁছাতে হলে এই সেবা কার্যক্রম দেশব্যাপী জোরদার করতে হবে। প্রত্যেক ক্যান্সারই আলাদা আলাদা এবং এদের চিকিৎসা পদ্ধতিও আলাদা। বর্তমানে দেশে ক্যান্সার নিয়ে প্রচুর গবেষণা হচ্ছে। সাশ্রয়ী খরচে দেশে ক্যান্সার রোগের উন্নত চিকিৎসাসেবার লক্ষ্যে বিশ্বমানের ক্যান্সার হাসপাতাল স্থাপনের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। দেশের প্রতিটি জেলায় ক্যান্সার হাসপাতাল গড়ে তোলা হচ্ছ।
 

তারা আরও বলেন, ক্যান্সারের চিকিৎসা নির্ভর করে নির্ভুল রোগ নির্ণয় ও দক্ষ চিকিৎসকের একাগ্রতার ওপর। ক্যান্সারের চিকিৎসায়  সার্বিক ভাবে বাংলাদেশ অনেক দূর এগিয়েছে। বর্তমানে বিশ্বমানের চিকিৎসাব্যবস্থা যেমন কেমোইমিউনো থেরাপি ও বোনম্যারো ট্রান্সপ্লান্টেশন ইত্যাদি চালু রয়েছে দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে। ক্যান্সার চিকিৎসায় আধুনিক যন্ত্রপাতি স্থাপন এবং সেগুলো পরিচালনার যথাযথ পরিবেশ সবসময়ই বড় চ্যালেঞ্জ। এর পরেও দেশে মেধাবী চিকিৎসক,  চিকিৎসা সামগ্রীর সমন্বয়ে বাংলাদেশের বেস কয়েকটি সরকারী-বেসরকারি হাসপাতাল ক্যান্সার চিকিৎসায় সফলতা দেখিয়েছে।
 

সিলেট ক্যান্সার  কংগ্রেস" এ ক্যান্সারের কারণ, প্রতিরোধ, শনাক্তকরণের নতুন নতুন প্রযুক্তি নিয়ে  সারাদেশ থেকে আনুমানিক ৭০০ জন, চিকিৎক, ইঞ্জিনিয়ার, মেডিকেল ফিজিসিস্ট যারা বিভিন্ন ভাবে, বিভিন্ন পর্যায়ে ক্যান্সারের কারণ নির্ণয়, প্রতিরোধ, সনাক্তকরণ, চিকিৎসার সার্জারী, রেডিওথেরাপি, কেমোথেরাপি, হরমোনথেরাপী, ইমিউনোথেরাপি, ফিজিওথেরাপী, এর সাথে সম্পৃক্ত অভিজ্ঞ সম্পন্ন ব্যক্তিরা উপস্থিত থেকে তাদের অভিমত উপাস্থাপন করেন।
 

‘সিলেট ক্যান্সার  কংগ্রেস’ এ ক্যান্সারের কারণ, প্রতিরোধ, শনাক্তকরণের নতুন নতুন প্রযুক্তি নিয়ে আলোচনা হয়। এগুলো ক্যান্সারের দ্রুত শণাক্ত করতে, ক্যান্সারের ধরণ, চিকিৎসার ধরণ সম্পর্কে ধারণা দিবে। ক্যান্সার চিকিৎসার উন্নত প্রযুক্তি, অত্যাধুনিক সার্জারী, রেডিওথেরাপী, কেমোথেরাপি, হরমোনথেরাপী, ইমিউনোথেরাপি প্রয়োগত ফলাফল নিয়ে আলোচনা হয়। এখানে সারাদেশ থেকে সিনিয়র ও জ্ঞানী চিকিৎসকগণ ক্যান্সার চিকিৎসার সর্বশেষ আপডেট নিয়ে উপস্থাপনা, আলোচনা করেন,এই উপস্থাপনা সিনিয়র ও জুনিয়র চিকিৎসকদের ক্যান্সার চিকিৎসা প্রদান সংক্রান্ত জ্ঞান ও অভিজ্ঞতার উন্নয়ন ঘটাবে।



 

সিলেটভিউ২৪ডটকম/প্রেবি/এসডি-৯২