প্রকাশিত: ০৯ মে, ২০২৩ ১১:১১ (রবিবার)
কেন্দ্রীয় নেতার অনুরোধ প্রত্যাখ্যান, লড়াইয়ে আ. লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান পদে উপ নির্বাচনে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেননি আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহসভাপতি হারুন রাশীদ। গতকাল সোমবার ছিল মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন।

 

গত শনিবার রাতে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যকরী কিমিটির নির্বাহী সদস্য আজিজুস সামাদ আজাদ ডন ওই প্রার্থীর গ্রামের বাড়িতে গিয়ে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের আহবান জানিয়েছিলেন। ফলে নেতাকর্মীদের মধ্যে প্রার্থিতা প্রত্যাহারের বিষয় নিয়ে আলোচনা শুরু হয়। নেতৃমূল নেতৃবৃন্দের প্রত্যাশা ছিল নির্বাচন থেকে সরে দাড়াতে পারেন হারুন। কিন্তু মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিনেও তিনি তাঁর মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেননি।

 

দলীয় নেতাকর্মীরা জানান, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য সাবেক পররাষ্টমন্ত্রী আব্দুস সামাদ আজাদের পুত্র আজিজুস সামাদ আজাদ ডন শনিবার সন্ধ্যায় দলের মনোনয়ন বঞ্চিত বিদ্রোহী প্রার্থী হারুন রাশীদ এর গ্রামের বাড়ি উপজেলার চিলাউড়া গ্রামে গিয়ে উপ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে তাঁর মনোনয়ন প্রত্যাহারের অনুরোধ করেন।

 

এসময় আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী নুরুল ইসলামসহ আওয়ামী লীগেরু দলীয় নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। কেন্দ্রীয় নেতা আজিজুস সামাদ ডনের অনুরোধের প্রেক্ষিতে বিদ্রোহী প্রার্থী হারুন রশীদ রোববার তাঁর সিদ্ধান্ত জানাবেন বলে জানান। পরে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের নিয়ে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

 

আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হারুন রশিদ জানান, ভোটারদের চাপে নির্বাচনে অংশ নিয়েছি।

 

প্রসঙ্গত, আগামি ২৫ মে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান পদে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন পাঁচ প্রার্থী।

 

গত বছরের ২ নভেম্বর জগন্নাথপুর উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী আকমল হোসেন চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলেন। ২৭ ডিসেম্বর তিনি মৃত্যুবরণ করলে নির্বাচন কমিশন কর্তৃক চেয়ারম্যানপদি শুণ্য ঘোষনা করে তফসিল ঘোষনা করে।

 

সিলেটভিউ২৪ডটকম/ মাহি