প্রকাশিত: ১২ মে, ২০২৩ ০১:৩১ (রবিবার)
ডাক্তার দেখানোর কথা বলে বেরিয়ে গৃহবধূর বাড়ি না ফেরার ১ বছর

সুনামগঞ্জের ছাতকে একবছর ধরে নিখোঁজ রয়েছেন তিন সন্তানের জননী সাজনারা বেগম। তিনি ছাতক সদর ইউনিয়নের বাউসা গ্রামের আশক আলীর স্ত্রী ও কোম্পানিগঞ্জ উপজেলার চাটিবহর গ্রামের মাফিজ আলীর মেয়ে।

নিখোঁজের পর তাকে অনেক খোঁজাখুজি করেছেন স্বামীর বাড়ির লোকজন। কিন্তু এ পর্যন্ত তাঁর কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি।

এক বছর ধরে নিখোঁজ মায়ের জন্য কান্নাকাটি করে যাচ্ছে তাঁর তিন সন্তান- শিপা বেগম, মাজেদ আহমদ ও মিনহাজ আহমদ। মাজেদ আহমদ বাউসা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৪র্থ শ্রেণি ও মিনহাজ আহমদ প্রথম শ্রেণির শিক্ষার্থী।

জানা গেছে, ২০২২ সালের ১২ মে স্বামীর বাড়ি থেকে ডাক্তার দেখানোর কথা বলে সাজনারা বেগম ছাতক শহরে যান। এ থেকেই নিখোঁজ রয়েছেন তিনি। তাঁর নিজ বাড়ি বা পিতার বাড়িতে আর ফিরেননি।

সাজনারা বেগম নিখোঁজের ৪ দিন পর তাঁর স্বামী আশক আলী ছাতক থানায় এ ব্যাপারে একটি জিডি (নং ৯১৫) করেন।

আশক আলী জানান, জিডির প্রেক্ষিতে ছাতক থানার এস আই মাসুদ রানা মোবাইল ট্যাকিংয়ের মাধ্যমে তাকে খোঁজাখুজি করে তার অবস্থান ঢাকায় বলে জানিয়েছেন। কিন্তু ঢাকার বিভিন্ন স্থানে খোঁজ নিয়ে এ পর্যন্ত তাঁর সন্ধান পাওয়া যাচ্ছে না।

আশক আলী আরো জানান, তার মনে হয় ঢাকাতেই আছেন তাঁর স্ত্রী। নিখোঁজের ব্যাপারে তিনি কিছু বলতে পারেননি।

জিডিতে সাজনারা বেগমের বয়স ৩৮,গায়ের রঙ ফর্সা, মুখ মন্ডল গোলাকার ও উচ্চতা অনুমান ৫ ফুট উল্লেখ করা হয়।

সিলেটভিউ২৪ডটকম / শংকর / ডি.আর