প্রকাশিত: ১৩ মে, ২০২৩ ১৭:৩৬ (রবিবার)
বিএনপি’র ১৩ নেতাকর্মী গ্রেফতার

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলায় থানা পুলিশের ওপর হামলা ঘটনায় বিএনপির একাংশের ১৩ নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
 

শনিবার দুপুরে গ্রেফতারকৃতদেরকে মৌলভীবাজার আদালতে পাঠানো হয়েছে।

এর আগেরদিন শুক্রবার সন্ধ্যারাতে শ্রীমঙ্গল উপজেলার আশিদ্রোন ইউনিয়নের টিকরিয়া এলাকার পৃথক স্থান থেকে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি ও তাঁর অঙ্গ-সংগঠনের ১৩ নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়।
 

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- মো. জাহাঙ্গীর আলম (২৫), মো. জুনায়েদ মিয়া (১৯), আবুল মিয়া (২০), মো. রুবেল মিয়া (২৮), মো. শেখ ফরিদ (৩৮), মো. রহিম মিয়া (২০), হাছান আহমেদ (৩৮), সেলিম আহমেদ (৪০), জাহেদুর রহমান (৩৯), শিবলু আহমেদ (৩৮), শামছুজ্জামান (৪২), মোঃ হাবিবুর রহমান (৩৮), শিপন আহমেদ (৩৬)। গ্রেফকৃত সবাই শ্রীমঙ্গল ও মৌলভীবাজার সদরের বাসিন্দা।
 

পুলিশ ও মামলার এজহার সূত্রে জানা যায়, শ্রীমঙ্গল শহরতলীর আশিদ্রোন ইউনিয়নের টিকরিয়া (চকগাঁও) ঈদগাঁ সংলগ্ন বাবুল মিয়ার বাড়ীর পাশে পাকা রাস্তার ওপর শ্রীমঙ্গল থানার অফিসার ফোর্স চেক পোস্ট ডিউটিতে নিয়োজিত ছিলেন। চেক পোস্ট ডিউটিকালে শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টার সময় একই ইউনিয়নের জানাউড়া (কড়ইতলা) এলাকায় শ্রীমঙ্গল উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক তাজ উদ্দিন তাজুর বসত বাড়ী সংলগ্ন স্থানে বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য মুজিবুর রহমান চৌধুরী তাঁর দলীয় নেতা কর্মীদের নিয়ে সাংগঠনিক মতবিনিময় সভা শেষে সিএনজি, নোহা ও মোটরসাইকেল যোগে শ্রীমঙ্গল শহরের দিকে ফেরার পথে দায়িত্বরত পুলিশের ওপর পাথরের টুকরা নিক্ষেপ করতে থাকে। তাদের হাতে থাকা বাঁশের লাঠি দিয়ে দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যদের এলোপাথারি মারপিট করতে থাকে। আসামীদের নিক্ষিপ্ত পাথর ও লাঠির আঘাতে তিনজন এসআই ও দু,জন পুলিশ কনস্টবলসহ মোট ৫ জন পুলিশ সদস্য আহত হন। এসময় পুলিশ সদস্যরা তাদের ওপর মৃদু লাঠিচার্জ ও ধাওয়া করলে ছত্রভঙ্গ হয়ে সিএনজি, নোহা ও মোটরসাইকেল নিয়ে পালিয়ে যায়। পরে শ্রীমঙ্গল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. আমিনুল ইসলাম ও এসআই আনোয়ারুল ইসলাম পাঠান, এসআই মো. রাকিবুল হাছানসহ অভিযান পরিচালনা কারিয়া ঘটনাস্থল ও বিভিন্ন স্থান হতে মোট ১৩জন গ্রেফতার করা হয়।
 

থানা পুলিশ বাদী হয়ে বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য মুজিবুর রহমান চৌধুরীকে প্রধান আসামীকে করে ৫৩ জনের নাম উল্লেখসহ একটি মামলা রুজু করা হয়। মামলা নং ১৫, তারিখ ১৩/০৫/২০২৩ইং।
 

শ্রীমঙ্গল থানার পুলিশ পরিদর্শক মো. আমিনুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, বিএনপির নেতাকর্মীর পাথর নিক্ষেপের কারণে ৫জন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। গ্রেফতারকৃত বিএনপি’র  ১৩ নেতাকর্মীকে মৌলভীবাজার আদালতে পাঠানো হয়েছে।
 

এব্যাপারে জানতে চাইলে শ্রীমঙ্গল উপজেলা বিএনপির সভাপতি নূরে আলম সিদ্দিকী বলেন, ‘আমরা শান্তিপূর্ণভাবে মতবিনিময় সভা করেছিলাম। পুলিশের ওপর কোন হামলা হয়নি। পুলিশ বরং আমাদের নেতাকর্মীকে মিটিং থেকে আটক করে মিথ্যা মামলা সাজিয়ে গ্রেফতার করেছে। আমাদের নেতাকর্মীকে গ্রেফতার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।’


 


সিলেটভিউ২৪ডটকম/সাইফুল/এসডি-২৪১