প্রকাশিত: ০৬ জুন, ২০২৪ ১৭:৪৩ (বুধবার)
হিটস্ট্রোক থেকে বাঁচতে পেঁয়াজ খাবেন যেভাবে

হালকা বৃষ্টি হলেও কিছুতেই কমছে না গরম। এমনকি বিভিন্ন জায়গায় চলছে তাপপ্রবাহও। গরমে বেড়েছে হিটস্ট্রোক ও সানস্ট্রোকের প্রবণতা। বহু মানুষ এই রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন। বাড়তি কিছু সতর্কতা অবলম্বন করলে হিটস্ট্রোকের ঝুঁকি কিছুটা হলেও কমে।

তবে কেবল বাহ্যিক সতর্কতা নয়, খাবারের ক্ষেত্রেও কিছু বিষয় মাথায় রাখতে হবে। প্রচণ্ড গরমে খেতে হবে এমন সব ফল আর সবজি যা শরীরকে ঠান্ডা রাখবে। যেসব সবজি হিটস্ট্রোকের হাত থেকে রক্ষা করে তাদের মধ্যে অন্যতম হলো পেঁয়াজ।

নানা পুষ্টিগুণে ঠাসা একটি মসলা পেঁয়াজ। এতে থাকা নানা উপাদান শরীর শীতল রাখতে সাহায্য করে। প্রচণ্ড গরমের প্রভাব থেকেও শরীরকে রক্ষা করে এটি। পেঁয়াজ খেলে হিটস্ট্রোক ও ডিহাইড্রেশনের মতো সমস্যা থেকে দূরে থাকা যায়।

পেঁয়াজে রয়েছে কুলিং এজেন্ট। এতে থাকা উদ্বায়ী তেল, শরীরের তাপমাত্রার ভারসাম্য বজায় রাখতে সাহায্য করে। পেঁয়াজে পানির পরিমাণ প্রচুর। তাই এটি গরমে শরীরকে হাইড্রেট থাকতে সাহায্য করে। এছাড়াও পেঁয়াজ পটাসিয়ামের মতো প্রয়োজনীয় ইলেক্ট্রোলাইট সরবরাহ করে, যা শরীরে পিএইচ স্তর বজায় রাখে।

ফ্ল্যাভোনয়েড, ফেনোলিক্স এবং ভিটামিন সি-সহ নানা অ্যান্টি অক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ একটি মসলা পেঁয়াজ। তাই প্রচণ্ড গরমেও শরীর ঠান্ডা রাখতে কার্যকর এটি। সালাদ আকারে কিংবা লাঞ্চ-ডিনারে খেতে পারেন পেঁয়াজ। সকালের নাশতায় স্যান্ডউইচেও কাঁচা পেঁয়াজ ব্যবহার করতে পারেন।

বিশেষজ্ঞদের মতে, পেঁয়াজের রস পানির সঙ্গে মিশিয়ে পান করলেও কাঁচা পেঁয়াজ খাওয়ার মতোই উপকারিতা মিলবে। যেকোনও বয়সী যে কেউ এইভাবে পেঁয়াজর রস খেতে পারেন। তবে দীর্ঘস্থায়ী কোনো রোগে ভুগলে এভাবে পেঁয়াজের রস খাওয়ার আগে অবশ্যই চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ করে নেবেন। হোমিওপ্যাথিক ওষুধ খেলে সেক্ষেত্রেও চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ করা আবশ্যক।

 


সিলেটভিউ২৪ডটকম/ডেস্ক/এসডি-৫১৩৬