সিলেটের বিয়ানীবাজারে পানি বন্দী ঘরে থেকে বৃদ্ধের ভাসমান লাশ উদ্ধার করেছেন স্বজনরা।

বুধবার সকালে উপজেলার কুড়ারবাজার ইউনিয়নের বৈরাগীর খশির নয়াগাও এলাকায় নিজের ঘরে বাহার উদ্দিনের (৬২) নিথর দেহ দেখতে পান তার স্ত্রী সন্তানরা। পরিবারে অন্য সদস্যরা আশ্রয়কেন্দ্রে থাকায় ঠিক কিভাবে কীভাবে তিনি মারা গেছেন সেই তথ্য কেউ নিশ্চিত করে বলতে পারছেন না।


পরিবারের সদস্য ও প্রতিবেশীদের সাথে কথা বলে জানা গেছে- ঐ বৃদ্ধের মৃগী রোগের লক্ষণ ছিলো।

বুধবার দুপুর পর্যন্ত তার লাশ স্থানীয় বৈরাগী বাজার সিনিয়র মাদ্রাসায় রাখা ছিলো। তাদের পারিবারিক কবরস্থানে পানি থাকায় অন্য কোথাও দাফনের ব্যবস্থা করার চেষ্টা করা হচ্ছে বলে জানান তার স্বজনরা। 

নিহত বাহার উদ্দিনের বড় মেয়ে রাবেয়া আক্তার জানান, বাড়িতে পানি উঠায় গত দুই দিন ধরে তারা সবাই খশির সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আশ্রয় কেন্দ্রে অবস্থান করছেন। মঙ্গলবার রাতে তিনি বাড়ি দেখার জন্য আশ্রয় কেন্দ্র থেকে বের হন। পরে মধ্য রাত পর্যন্ত আশ্রয় কেন্দ্রে ফিরে না আসায় তারা বিভিন্ন স্বজনদের কাছে ফোনে খবর নেন। তাদের কারো বাড়িতে তিনি জাননি এমন খবরে তাদের দুঃচিন্তা বাড়তে থাকে। পরে ভোরে তারা তার সন্ধানে বাড়িতে গিয়ে ঘরের খাটের পাশে তার মর দেহ দেখতে পান। এসময় প্রতিবেশী ও স্বজনদের সহযোগীতায় লাশ উদ্ধার করে নৌকা যোগে বৈরাগীবাজার সিনিয়র মাদ্রাসায় নিয়ে আসেন। এখনও তার দাফনের জন্য কবর খনন না হওয়ায় জানাজার নামাজের সময় নির্ধারন করা সম্ভব হচ্ছে না। 

নিহতের প্রতিবেশী মানিক উদ্দিন বলেন, সকালে তার স্ত্রী সন্তানদের চিৎকার শুনে বের হয়ে লাশ দেখতে পান। তার স্ত্রীর সাথে কথা বলে তারা নিশ্চিত হয়েছেন যে, তার মৃগী রোগের লক্ষণ ছিলো।

বিয়ানীবাজার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশিক নূর বলেন, আমরা মৃত্যুর সংবাদ পেয়েছি। তার পরিবারে সাথে কথা বলার চেষ্টা করছি।


সিলেটভিউ২৪ডটকম / রাজু / ডি.আর