রোজায় সিলেটের হোটেল-রেস্তোরাঁর পাশাপাশি রাস্তার পাশে অস্থায়ী দোকান বসিয়ে নানা পদের ইফতার বিক্রি হয় দেদারসে। তবে এসব খোলা ইফতারে ধুলাবালিতো থাকছেই সাথে থাকছে বিভিন্ন রোগের জীবানু। লোভনীয় এই ইফতার খেয়ে জন্ডিস, টাইফয়েড, ডায়রিয়াসহ বিভিন্ন অসুখের বিষয়ে সতর্ক করেছেন চিকিৎসকরা।
 

মহানগরীর বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়, বিভিন্ন রেস্টুরেন্টের পাশাপাশি বিভিন্ন আস্থায়ী দোকনে বিক্রি হচ্ছে বাহরি ইফতার। হাতেগুনা করেকটি দোকান বাদে সবকটি দোকনে খোলা, অস্বাস্তকর অবস্থায় বিক্রি হচ্ছে ইফতার।
 


এসব বিষয়ে উদাসীন ক্রেতার। জানতে চাইলে ক্রেতারা বলেন, রোজায় এসব অনেক বিষয় নজর আরাল করেন তারা। এগুলো দেখতে গেলে ইফতার খাওয়া বাদ দিয়ে দিতে হবে। তবে এসব খোলা ইফতার খেয়ে আনেকেরই বিভিন্ন সমস্যা হয়েছে বলে জানা যায়।
 

খোলা ক্ষতিকর জেনেও খোলা খাবার কেনার পেছনে যুক্তি হিসেবে তারা বলেন, “আসলে বাসায় যেসব ইফতার আইটেম বানানো যায় না, সেগুলোই সবাই বাইরে থেকে কেনেন। তবে স্বাস্থ্যের কথা ভাবলে এগুলো না কেনাই উচিত।”
 

রোজায় উন্মুক্ত অবস্থায় বিক্রি করা ইফতার সামগ্রী খাওয়া থেকে সম্পূর্ণভাবে বিরত থাকার পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসকরা। খোলা অবস্থায় বিক্রি করা ইফতার খেলে ফুড পয়জনিং, জন্ডিস হতে পারে। জন্ডিস রোগের জন্য দায়ী ‘হেপাটাইটিস’ জীবাণু পানি ও খোলা খাবার থেকে ছড়ায়। এছাড়া ভাজা-পোড়া খেলে পাকস্থলির নানা রোগ হতে পারে। সারা দিন খালি পেটে থাকার পর ইফতারের সময় তরল খাবার ও ফলমূল বেশি করে খাওয়ার পরামর্শ দেন এই চিকিৎসক।

 


সিলেটভিউ২৪ডটকম/ নাজাত/এসডি-০৯