কানাইঘাট সার্কেলের এএসপি আব্দুল করিম বলেছেন, পবিত্র মাহে রমজান মাসে গরীব, অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানো আমাদের সকলের নৈতিক দায়িত্ব। নিজ নিজ এলাকার বিত্তশালীরা ও সামাজিক সংগঠনগুলো অসহায়দের পাশে দাঁড়িয়ে সহযোগিতার হাত প্রসারিত করলে সবার হাতে আমরা খাদ্য, অন্ন, বস্ত্র তুলে দিতে পারব।
 

তিনি আয়শা-সাজ্জাদ ফারুকী কল্যাণ ট্রাস্টের উদ্যোগে সাতবাঁক ইউনিয়নের দেড়শতাধিক অসহায় পরিবারকে নগদ অর্থ ও খাদ্য দিয়ে সহযোগিতা করায় ট্রাস্টের নেতৃবৃন্দের প্রতি ধন্যবাদ জানান।
 


এএসপি আব্দুল করিম সোমবার দুপুর ১২টায় সাতবাঁক ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে আয়শা-সাজ্জাদ ফারুকী কল্যাণ ট্রাস্টের উদ্যোগে পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষে দেড় শতাধিক পরিবারের মধ্যে নগদ অর্থ ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণ কালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।
 

আয়শা-সাজ্জাদ ফারুকী কল্যাণ ট্রাস্টের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান কানাইঘাট প্রেসক্লাবের সভাপতি রোটারিয়ান শাহজাহান সেলিম বুলবুলের সভাপতিত্বে ও ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিনের পরিচালনায় নগদ অর্থ ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- কানাইঘাট প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, সিনিয়র সাংবাদিক এম.এ হান্নান, কানাইঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ গোলাম দস্তগীর আহমেদ, সাতবাঁক ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান মাস্টার ফয়জুল ইসলাম, বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান আবু তায়্যিব শামীম।
 

বক্তব্য রাখেন, ট্রাস্টের সদস্য সচিব সাবেক ইউপি সদস্য জাহাঙ্গীর শামীম কামরুল, সমাজকর্মী ফখর উদ্দিন।

উপস্থিত ছিলেন, সাতবাঁক ইউপি আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ইউপি সদস্য রইছ উদ্দিন, সমাজকর্মী জাহাঙ্গীর আলম বাবলু, ইউপি সদস্য শফিকুল হক তোতা, ফারুক আহমদ, হারিছ নোমানী, ফখর উদ্দিন, সমাজসেবী এখলাছুর রহমান, কানাইঘাট প্রেসক্লাবের সহ সম্পাদক মাহবুবুর রশিদ, দপ্তর সম্পাদক মুমিন রশিদ, সাহিত্য ও প্রকাশনা সম্পাদক শাহিন আহমদ, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক আমিনুল ইসলাম।
 

পবিত্র কুরআনে পাক থেকে তেলাওয়াত করেন প্রেসক্লাবের সদস্য হাফিজ আহমদ সুজন। দেশ ও জাতির অগ্রগতি কামনা করে দোয়া পরিচালনা করেন, হাফিজ আব্দুস সাহিদ মাখদুমী।

নগদ অর্থ সহায়তা ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণকালে অতিথিবৃন্দ বলেন, মরহুম সাজ্জাদুর রহমান ফারুকী ১৭ পরগনার একজন সালিশ ব্যক্তিত্ব ছিলেন। একজন ইসলামিক চিন্তাবিদ ও রাজনৈতিক নেতা হিসেবে কানাইঘাটের আর্ত-সামাজিক উন্নয়নে তিনি অনেক অবদান রেখেছেন। তার সুযোগ্য সন্তান সাংবাদিক শাহজাহান সেলিম বুলবুল তার প্রয়াত পিতা সাজ্জাদুর রহমান ফারুকী ও মাতা আয়শা সাজ্জাদ ফারুকীর স্মৃতিকে ধরে রাখার জন্য ট্রাস্ট গঠনের মাধ্যমে এলাকার অসহায় মানুষের পাশে থেকে দীর্ঘদিন ধরে মানবিক কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন।

ঈদকে সামনে রেখে দেড়শতাধিক পরিবারের মধ্যে নগদ অর্থ ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করায় তারা সাংবাদিক শাহজাহান সেলিম বুলবুলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন এবং এধরনের মহতি কার্যক্রম সব-সময় বজায় রাখার জন্য আহ্বান জানান।


 

সিলেটভিউ২৪ডটকম/প্রেবি/এসডি-০৯