এত অল্প সময়ে আফগানিস্তানের বিভিন্ন সমস্যা সমাধান করা সম্ভব কী না তা নিয়ে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে প্রশ্ন ছুড়ে দিয়েছেন তালেবান সরকারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমির খান মুত্তাকি। এছাড়া আফগানিস্তানের সঙ্গে ভালো সম্পর্ক বজায় রাখার জন্য বিশ্ব সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বানও জানিয়েছেন তিনি।

সোমবার দোহা ইনস্টিটিউট ফর গ্র্যাজুয়েট স্টাডিজে ‘সেন্টার ফর কনফ্লিক্ট অ্যান্ড হিউম্যানিটারিয়ান স্টাডিজ’ আয়োজিত অনুষ্ঠানে মুত্তাকি বলেন, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের পক্ষ থেকে আমাদের সঙ্গে পারস্পরিক সহযোগিতাপূর্ণ সম্পর্কের সূচনা করা উচিত। এর মধ্য দিয়ে আমরা নিরাপত্তাহীন পরিস্থিতি কাটাতে পারব এবং একই সময়ে বিশ্বসম্প্রদায়ের সঙ্গে ইতিবাচকভাবে যুক্ত হতে পারব।

তালেবানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, তালেবান সরকার সতর্কভাবে এগোচ্ছে। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় যে সংস্কারগুলো ২০ বছরে বাস্তবায়ন করতে পারেনি, সেগুলো কয়েক সপ্তাহ বয়সী তালেবান সরকারের কাছ থেকে আশা করা ঠিক হবে না। এ সময় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি প্রশ্ন ছুড়ে দিয়ে তালেবানের এই পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, অনেক অর্থসম্পদ, বিশ্ব সম্প্রদায়ের দৃঢ় সমর্থন থাকা সত্ত্বেও তারা পারেনি, অথচ একই সময়ে আপনারা আমাদের দুই মাসেই সংস্কার আনতে বলছেন?

কাবুলে পশ্চিমা সমর্থিত সাবেক সরকারের পতন এবং ক্ষমতা দখলের প্রায় দুই মাস পর তালেবান সরকার অন্য দেশের সঙ্গে সম্পর্ক প্রতিষ্ঠা করতে চাইছে। চরম অর্থনৈতিক সংকট থেকে আফগানিস্তানকে বাঁচাতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সহায়তা চাইছে তারা।

তালেবানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমির খান মুত্তাকি জানিয়েছেন, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় ও আঞ্চলিক দেশগুলোর কাছে সুসম্পর্কের বার্তা পাঠিয়েছে আফগানিস্তান। কাবুল কোনো দেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ করতে চায় না। অন্যদের কাছ থেকেও একই রকমের আচরণ প্রত্যাশা করে।

সিলেটভিউ২৪ডটকম/জিএসি-০৩


সূত্র : যুগান্তর