দিরাই উপজেলার বিভিন্ন হাওর রক্ষা বাঁধ নির্মাণ কাজ পরিদর্শন করেছেন সিলেট ল কলেজের সাবেক ভিপি, সিলেটের এডিশনাল পিপি অ্যাডভোকেট শামসুল ইসলাম।
 

শনিবার বিকেলে হাওর উন্নয়ন পরিষদের নেতৃবৃন্দকে সাথে নিয়ে তিনি হাওরাঞ্চলের কৃষকদের একমাত্র বোরো ফসল রক্ষায় বাঁধ নির্মাণ কাজ পরিদর্শন করেন।
 


এসময় অ্যাডভোকেট শামসুল ইসলাম বলেন, হাওরের ফসল রক্ষা বাঁধের কাজে অনিয়ম করলে কাউকে ছাড় দেয়া হবে না। বাঁধ নির্মাণে কোন গাফিলতি হলে পিআইসি সহ সংশ্লিষ্ট কাউকেই ছাড় দেয়া হবে না। তাদের আমরা আইনের কাঠগড়া দাঁড় করাবো। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কৃষকের ফসল রক্ষায় শত শত কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছেন। কাজেই ফসল নিয়ে কোন তালবাহানা চলবে না। যারা পিআইসি হয়েছেন তাদের নিয়ম মেনে বাঁধ নির্মাণ ও নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই কাজ শেষ করতে হবে। বাঁধ মনিটরিংয়ের দায়িত্বে থাকা সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের কোন অনিয়ম পেলে আমরা তাদেরকেও আইনের কাঠগড়া দাঁড় করাবো।
 

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার হাওরাঞ্চলের মানুষের জীবনমান উন্নয়নে ব্যাপক পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। ইতিমধ্যে কালনী নদীতে সেতু নির্মাণ করা হয়েছে। শিগ্রই হাওরে উড়াল সড়ক নির্মাণের প্রকল্প হাতে নেওয়া হবে।
 

বাঁধ পরিদর্শনকালে উপস্থিত ছিলেন- আওয়ামী লীগ নেতা ইসলাম উদ্দিন, হাওর উন্নয়ন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক খালেদ মিয়া, সাবেক ইউপি সদস্য সোহেল রানা, হাতিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি আখলাক হুসেন, যুবলীগ নেতা লেবাস মিয়া, শমসু মিয়া, দুবাই ইয়াং বাংলা’র সভাপতি রিপন আহমেদ, যুবলীগ নেতা শিপন আহমদ, জাহেদ হাসান, মশিউর রহমান, ছাত্রলীগ নেতা আকিকুর রহমান প্রমুখ।
 

সিলেটভিউ২৪ডটকম/প্রেবি/এসডি-৩১