সুনামগঞ্জের ছাতকে দলীয় অভ্যন্তরীণ কোন্দলে উপজেলা যুবলীগ কর্মী লায়েক মিয়া হত্যার ঘটনায় ১৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। শুক্রবার রাত সাড়ে ৯ টায় নিহতের ভাই আজিজুল ইসলাম ছাতক থানায় এই মামলা দায়ের করেন। 

মামলায় উপজেলা যুবলীগ নেতা আব্দুল কুদ্দুছ শিবলু, ছাতক পৌরসভার প্যানেল মেয়র তাপস চৌধুরী, স্থানীয় সংসদ সদস্যের ভাতিজা তানভীর রহমানকে আসামি করা হয়েছে। 


এদিকে, লায়েক হত্যার প্রতিবাদে শুক্রবার বিকালে ছাতক উপজেলা সদরে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেন আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা। 

মামলার অন্য আসামিরা হলেন, যুবলীগ নেতা সাদমান মাহমুদ সানি, সাবেক জামাত নেতা আলা উদ্দিন,  আবুল খয়ের টুটুল, তাজ উদ্দিন, মিজান মিয়া, আব্দুল মতিন, শামসুল ইসলাম, মিলন মিয়া, এশাদ আলী, সায়মন, মহসিন ও সৌরভ।

সুনামগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আবু সাঈদ বলেন, লায়েক হত্যার ঘটনায় তার ভাইয়ের দায়ের করা মামলা রেকর্ড করা হয়েছে (মামলা নম্বর ২৫)। আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান চলছে বলে জানান তিনি।

উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে ছাতক থানা সংলগ্ন গনেশপুর খেয়াঘাটে একটির চায়ের দোকানে প্রতিপক্ষের  ছুরিকাঘাতে খুন হন উপজেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি লায়েক মিয়া। তিনি ছাতক পৌর শহরের মণ্ডলিভোগ আবাসিক এলাকার মৃত আব্দুল মান্নানের ছেলে। 
 


সিলেটভিউ২৪ডটকম/শহিদনূর/পল্লব-১১