সারা বিশ্বের মুসলমানরা বর্তমানে পবিত্র রমজান মাস পার করছেন। এই মাস শেষেই উদযাপিত হবে পবিত্র ঈদুল ফিতর। রমজান মাস শেষের দিকে চলে আসায় আসন্ন ঈদ নিয়েও শুরু হয়েছে ক্ষণ গণনা।

এই পরিস্থিতিতে ঈদের চাঁদ দেখা নিয়ে নতুন তথ্য সামনে এনেছে আবুধাবি-ভিত্তিক আন্তর্জাতিক জ্যোতির্বিদ্যা কেন্দ্র। সংস্থাটি বলছে, আগামী বৃহস্পতিবার ঈদের চাঁদ দেখা যাওয়ার সম্ভাবনা কম এবং এতে করে আগামী শনিবার (২২ এপ্রিল) সৌদি আরব-আমিরাতসহ মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে ঈদ উদযাপিত হতে পারে।


সোমবার (১৭ এপ্রিল) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম খালিজ টাইমস।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আগামী ২২ এপ্রিল শনিবার ঈদুল ফিতর উদযাপিত হতে পারে বলে জানিয়েছে আবুধাবি-ভিত্তিক আন্তর্জাতিক জ্যোতির্বিদ্যা কেন্দ্র। যা পূর্ববর্তী ভবিষ্যদ্বাণীর চেয়ে একদিন পরে।

জ্যোতির্বিজ্ঞান এই সংস্থাটি বলেছে, তাদের এই ভবিষ্যদ্বাণী জ্যোতির্বিজ্ঞানের তথ্যের ভিত্তিতে এবং ঈদের সঠিক তারিখটি কেবলমাত্র নতুন চাঁদ দেখার ভিত্তিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষই নিশ্চিত করবে।


খালিজ টাইমস বলছে, আগামী ২০ এপ্রিল বৃহস্পতিবার ইফতারের পর পশ্চিম আকাশে শাওয়াল মাসের চাঁদের সন্ধান করবে আরব দেশগুলো। তবে আন্তর্জাতিক জ্যোতির্বিদ্যা কেন্দ্রের পর্যবেক্ষণ বলছে, ওই দিন আরব এবং ইসলামি বিশ্বের কোনও স্থান থেকেই খালি চোখে শাওয়াল মাসের চাঁদ দৃশ্যমান হবে না।

এক বিবৃতিতে আবুধাবি-ভিত্তিক এই সংস্থাটি জানিয়েছে, ‘লিবিয়া থেকে শুরু করে পশ্চিম আফ্রিকার কিছু অংশ ছাড়া আরব ও ইসলামিক বিশ্বের বেশিরভাগ দেশ থেকে টেলিস্কোপ দিয়ে বৃহস্পতিবার চাঁদ দেখা সম্ভব নয়। কিন্তু পশ্চিম আফ্রিকার কিছু অংশ থেকে বৃহস্পতিবার চাঁদ খুঁজে পাওয়া খুবই কঠিন এবং এর জন্য বিশেষ টেলিস্কোপ প্রয়োজন। এর সঙ্গে প্রয়োজন পেশাদার মনিটরিং এবং ব্যতিক্রমী আবহাওয়া। আর এই সমস্ত বিষয়গুলো একসঙ্গে ঘটার সম্ভাবনা খুবই বিরল। তাই আরব বিশ্বের কোথাও টেলিস্কোপ ব্যবহার করেও বৃহস্পতিবার চাঁদ দেখা যাবে বলে আশা করা যায় না। যদি না উল্লেখ করা পরিস্থিতি বিদ্যমান থাকে।’

সংস্থাটি বলছে, যেহেতু মাসের শুরুতে চাঁদ দেখা একটি পূর্বশর্ত, তাই ঈদুল ফিতর এখন ২২ এপ্রিল শনিবার অনুষ্ঠিত হবে বলে আশা করা হচ্ছে। তবে আন্তর্জাতিক জ্যোতির্বিদ্যা কেন্দ্র বৃহস্পতিবার থেকে জনগণকে চাঁদ দেখার চেষ্টা করতে বলেছে এবং তা দেখা গেলে রিপোর্ট করার আহ্বান জানিয়েছে।

আন্তর্জাতিক জ্যোতির্বিদ্যা কেন্দ্র আরও জানিয়েছে, যেসব দেশের জন্য শুধুমাত্র খালি চোখে সঠিকভাবে চাঁদ দেখা বা টেলিস্কোপের সাহায্যে স্থানীয় পর্যায় থেকে সঠিক ভাবে চাঁদ দেখা প্রয়োজন, তারা পবিত্র রমজান মাস ৩০ দিন পূর্ণ করার জন্য রোজা পালন চালিয়ে যাবে বলে আশা করা হচ্ছে এবং তাই তাদের ঈদুল ফিতর শনিবার হবে।

পাঁচ দিনের সাপ্তাহিক ছুটি
সংযুক্ত আরব আমিরাতের মানবসম্পদ ও এমিরেটাইজেশন মন্ত্রণালয় (এমওএইচআরই) ২৯ রমজান থেকে শাওয়াল মাসের ৩ তারিখ পর্যন্ত ঈদুল ফিতরের সরকারি ছুটি ঘোষণা করেছে। যদি ২০ এপ্রিল বৃহস্পতিবার চাঁদ দেখা না যায় এবং ২২ এপ্রিল ঈদ হয়, তাহলে সংযুক্ত আরব আমিরাতের বাসিন্দারা পাঁচ দিনের সাপ্তাহিক ছুটি উপভোগ করবেন।

অবশ্য বৃহস্পতিবার চাঁদ দেখা গেছে নাকি যায়নি তা খতিয়ে দেখে ঈদের সঠিক তারিখ ঘোষণা করবে সংযুক্ত আরব আমিরাতের চাঁদ দেখা কমিটি।


সিলেটভিউ২৪ডটকম/ডেস্ক/ইআ-০৬