নেপালের উত্তর পশ্চিমাঞ্চলীয় মুগু জেলায় একটি যাত্রীবাহী বাস খাদে পড়ে অন্তত ২৮ জন নিহত হয়েছেন।  এ দুর্ঘটনায় বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন।  খবর আলজাজিরার।

মুগু জেলার কর্মকর্তা রোম বাহাদুর মাহাত জানান, স্থানীয় সময় মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে যাত্রীবাহী বাসটির সামনের একটি চাকা পাঙচার হয়ে খাদে পড়ে যায়।  বাসটি বাঙ্কে জেলা থেকে  মুগুর দিকে যাচ্ছিল।  এতে ৪৫ জন যাত্রী ছিলেন।  হিন্দু ধর্মালম্বীদের ধর্মীয় উৎসবে যোগ দিতে তারা মুগুর দিকে যাচ্ছিল।  নিহতদের পরিচয় শনাক্তের চেষ্টা চলছে বলে জানান বাহাদুর মাহাত।

স্থানীয়রা জানান, রাস্তা থেকে বাসটি ৩০০ মিটার গভীর খাদে পড়ে যায় বলে।  পুলিশের ধারণা, ব্রেক কাজ না করায় এবং চাকা পাঙচার হয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বাসটি খাদে পড়ে যায়।

রম বাহাদুর মাহাত আরও জানান, দুর্ঘটনার খবর পেয়ে সেনাবাহিনী, পুলিশ ও স্থানীয় বাসিন্দারা ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধার তৎপরতা চালায়।

তিনি বলেন, দুর্গম এলাকায় দুর্ঘটনাটি ঘটেছে, যার কারণে প্রাণহানি বেশি হয়েছে। প্রাথমিক তদন্ত অনুযায়ী, ব্রেক কাজ না করার কারণে গাড়িটি দুর্ঘটনার কবলে পড়ে। তবে বিস্তারিত জানতে তদন্ত কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

মুগু জেলা পুলিশ কার্যালয় জানায়, বাসটিতে ৪৫ জন যাত্রী ছিলেন। এদের মধ্যে ২৪ জন ঘটনাস্থলেই মারা যায়। এ ছাড়া হাসপাতালে নেওয়ার পথে চারজনের মৃত্যু হয়।

আহত ১২ জনেরও বেশি যাত্রীকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। কয়েকজনকে হেলিকপ্টারে করে নিকটবর্তী হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।
 
সিলেটভিউ২৪ডটকম/ডেস্ক/মিআচৌ-০৫