সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার রানীগঞ্জের কুশিয়ারা নদীর লঞ্চঘাটে জুয়া খেলার আসরে পুলিশের ধাওয়া খেয়ে তাজ উদ্দিন (৬৭) নামে এক ব্যক্তি নিখোঁজ রয়েছেন।  বুধবার (১৯ জানুয়ারি) বিকেলে এ ঘটনাটি ঘটেছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্র জানায়, রানীগঞ্জ ইউনিয়নের চার ব্যক্তি কুশিয়ারা নদীর পুরাতন লঞ্চঘাটে বসে  জুয়া খেলছিলেন। এ খবর পেয়ে জগন্নাথপুর থানার উপপরিদর্শক সফিকুল ইসলাম জুয়ার আসরে ধাওয়া দিলে চার ব্যক্তি কুশিয়ারা নদীতে ঝাঁপ দেয়। তাদের মধ্যে তিনজন সাঁতার কেটে পাড়ে উঠতে পারলেও উপজেলার রানীগঞ্জ ইউনিয়নের গন্ধবপুর গ্রামের তাজ উদ্দিন (৬৭) ওঠতে পারেননি। সাঁতার দিয়ে পাড়ে ওঠতে পারা গন্ধবপুর গ্রামের আছাব আলী (৫৫) কে স্হানীয় লোকজন আহতাবস্থায়  উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করেন।


পুলিশ, এলাকাবাসী ও ফায়ার সার্ভিসের লোকজন নিখোঁজ ব্যক্তিকে উদ্ধারে প্রচেষ্টা  চালিয়ে যাচ্ছেন।

এ বিষয়ে জানতে বুধবার রাতে জগন্নাথপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মিজানুর রহমানের সাথে আলাপ হলে তিনি জানান, গত কয়েকদিন ধরে মাদক ব্যাবসায়ী ও জুয়াড়িদের বিরুদ্ধে অভিযান চলছে। রানিগঞ্জ  অভিযানে যাওয়া পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে কয়েকজন নদীতে ঝাঁপ দিলে এদের একজন পাড়ে উঠতে পারেনি।  খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্হলে উদ্ধার অভিযান চালিয়ে যাচ্ছি ।

নিখোঁজ ব্যক্তির সন্ধান এখন ও পাওয়া যায়নি। গভীর রাত হওয়ায় শীতের জন্য উদ্ধার কাজ কিছু সময়ের জন্য স্থগিত রাখা হয়েছে । বৃহস্পতিবার ডুবুরি দল নিয়ে আবার উদ্ধার কাজ শুরু করা হবে বলে জানান ওসি।  

সিলেটভিউ২৪ডটকম/সুনু/শিপু-০৭