ভালোবেসে প্রেমিকের সঙ্গে আংটি বদল করেছিলেন নায়িকা নুসরাত ফারিয়া। তবে বাগদানের পর কয়েক বছর চলে গেলেও বিয়েটা করেননি। আপাতত পরিকল্পনাও নেই। এর মধ্যেই ফারিয়ার ‘বিবাহ অভিযানে’ পড়ল রাজনৈতিক বাধা!

 


এটা অবশ্য ফারিয়ার বাস্তবের বিবাহ অভিযান নয়, সিনেমার। কলকাতায় ২০১৯ সালে ‘বিবাহ অভিযান’ নামে একটি সিনেমায় অভিনয় করেছিলেন তিনি। এই সিনেমারই দ্বিতীয় কিস্তি নিয়ে সৃষ্টি হয়েছে জটিলতা।

 

‘বিবাহ অভিযান ২’ নামে নির্মিত হচ্ছে সিনেমাটি। আগামী মাসেই থাইল্যান্ডে এর শুটিং হওয়ার কথা। ফারিয়াও শিডিউল দিয়ে রেখেছিলেন। কিন্তু সর্বশেষ খবর অনুসারে, সিনেমাটির কাজ অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ হয়ে গেছে। ভারতের একটি গণমাধ্যম খবরটি নিশ্চিত করেছে।

 

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সিনেমাটির শুটিং পিছিয়ে যাওয়ার নেপথ্যে রয়েছে রাজনৈতিক কারণ। প্রথম কিস্তির মতো ‘বিবাহ অভিযান ২’-এর কাহিনীও লিখছেন অভিনেতা রুদ্রনীল ঘোষ। তিনি আবার বিজেপি দলের সক্রিয় কর্মী। পশ্চিমবঙ্গের ক্ষমতাসীন তৃণমূলের কট্টর সমালোচক। শোনা যাচ্ছে, রুদ্রনীলের কারণেই নাকি সিনেমাটি ঘিরে জটিলতা তৈরি হয়েছে।

এদিকে শুটিং স্থগিত হয়ে যাওয়ার খবর নিশ্চিত করলেন নুসরাত ফারিয়াও। তিনি গণমাধ্যমকে বলেছেন, ‘কোরবানির ঈদের সময়টাতে কথা ছিল থাইল্যান্ডে সিনেমাটির শুটিং হবে। কিন্তু সম্প্রতি আমাকে জানানো হয়েছে নির্ধারিত তারিখে শুটিং হচ্ছে না। তাই থ্যাইল্যান্ড যাওয়া ক্যান্সেল করা হয়েছে।’

 

‘বিবাহ অভিযান’ পরিচালনা করেছিলেন বিরসা দাশগুপ্ত। দ্বিতীয় কিস্তিও তার পরিচালনার কথা ছিল। কিন্তু কিছুদিন আগেই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান এসভিএফ ঘোষণা দেয়, এটি পরিচালনা করবেন সায়ন্তন ঘোষাল। প্রথম খণ্ডে নুসরাত ফারিয়া ছাড়াও অভিনয় করেছিলেন অঙ্কুশ হাজরা, অনির্বাণ ভট্টাচার্য, রুদ্রনীল ঘোষ, সোহিনী সরকার ও প্রিয়াঙ্কা সরকার প্রমুখ। এবারও তারাই থাকবেন বলে শোনা যাচ্ছে।

 


সিলেটভিউ২৪ডটকম/ডেস্ক/এসডি-৩২
 


সূত্র : ঢাকাপোষ্ট