করোনা মহামারি শুরুর পর থেকে বিশ্বের বড় বড় বহু সংস্থাই কর্মী ছাঁটাই করেছে। আবার বহু প্রতিষ্ঠান তাদের কর্মীদের বেতনও কমিয়ে দিয়েছে। তাই বলে ৩ মিনিটের জুম কলে প্রতিষ্ঠানের কর্মরত ৯০০ কর্মীকে ছাঁটাই! গণছাঁটাইয়ের এই ঘটনা সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রে ঘটেছে।

সোমবার (৬ ডিসেম্বর) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।


সিলেট ভিউ'র খবর নিয়মিত পেতে

দিয়ে যুক্ত থাকুন

প্রতিবেদনে সংবাদমাধ্যমটি জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে বেটার ডট কম নামে একটি মর্টগেজ সংস্থার চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার (সিইও) হিসেবে দায়িত্বপালন করছেন বিশাল গর্গ নামে এক ভারতীয় প্রবাসী। সম্প্রতি মাত্র তিন মিনিটের জুম কলে সংস্থার ১৫ শতাংশ কর্মীকে ছাঁটাই করেছেন তিনি। অর্থাৎ একসঙ্গে ৯০০-র বেশি কর্মীকে ছাঁটাই করা হয়েছে ওই বৈঠকে।

মার্কিন সংবাদমাধ্যমগুলোর বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আর কয়েক দিনের মধ্যে ছুটির মৌসুম শুরু হবে। তার আগে প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক আহ্বান করা হয়। নির্দেশনা অনুযায়ী, অনলাইন প্লাটফর্মের ওই বৈঠকে সময় মতো হাজিরও হয়েছিলেন কর্মীরা।

হঠাৎ-ই বৈঠকে যোগ দিয়ে সিইও বিশাল গর্গ জানিয়ে দেন, একসঙ্গে ১৫ শতাংশ কর্মীকে ছাঁটাই করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রতিষ্ঠান। যা শুনে স্বাভাবিক ভাবেই মাথায় আকাশ ভেঙে পড়ে কর্মীদের। কারণ তারা তখনও জানেন না, ঠিক কী কারণে তাদের ছাঁটাই করা হলো!

এভাবে গণছাঁটাই করা নিয়ে বৈঠকে ৪৩ বছর বয়সী বিশাল বলেন, ‘খুব একটা ভালো খবর নিয়ে আসিনি। বাজার দ্রুত বদলাচ্ছে। বাজারে টিকে থাকতেই কোম্পানিকে এই কঠোর সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে। এই সিদ্ধান্ত আমার, তাই আমার কাছ থেকেই শোনা উচিত ছিল আপনাদের।’

তিনি আরও বলেন, ‘এই নিয়ে দ্বিতীয়বার কর্মী ছাঁটাই করছি আমি। যা অত্যন্ত কঠিন কাজ। আমি সত্যিই এটি করতে চাই না। এর আগের বার ভীষণ কেঁদেছিলাম আমি। আশা করছি, এ বার শক্ত থাকতে পারবো। এই মুহূর্ত থেকে আপনারা আর এই সংস্থার কর্মী নন।’

ওই জুম কলের ভিডিও ইতোমধ্যেই অনলাইনের বিভিন্ন প্লাটফর্মে ছড়িয়ে পড়েছে। ছাঁটাই হওয়া কর্মীদের একটি অংশই তা প্রকাশ্যে এনেছেন।

 

সিলেটভিউ২৪ডটকম/ডেস্ক/এসডি-০৮